দুই নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণ করল পাঁচ সিএনজি চালক!

গাজীপুরের শ্রীপুরে দুই কারখানা শ্রমিককে গণধর্ষণের ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পাঁচজনকে আসামি করে শ্রীপুর থানায় মামলা করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শ্রীপুর উপজেলার বিধাই গ্রামের আব্দুল বারেকের ছেলে শাহীনুর (৩০), একই গ্রামের আইয়ুব ঢালীর ছেলে কালাম (২৬), বিল্লাল হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর (৩০) ও আলিম হোসেনের ছেলে বাবু (১৮)। অভিযুক্তরা সবাই সিএনজিচালক।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ীর আকবর কটন মিলে দীর্ঘদিন ধরে চাকরি করছেন দুই তরুণী। কারখানার কোয়ার্টারে থেকে ‘হেলপার’ পদে চাকরি করছেন তারা। দীর্ঘদিন পরিচয়ের সূত্র ধরে এক তরুণীকে প্রেমের প্রস্তাব দেন শাহীনুর।

গত শুক্রবার (২১ অগাস্ট) বিকেলে কারখানা ছুটি হলে দুই তরুণীর একজনকে শাহীনুর ইসলাম মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে শ্রীপুরে বেড়ানোর প্রস্তাব দেন। ওই তরুণী তার সহকর্মীকে নিয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শ্রীপুর যান।

সেখান থেকে শাহীনুর ও তার সঙ্গীরা তাদের একজনকে কৌশলে বিধাই গ্রামের ভ্রমরা ভিটায় পরিত্যক্ত একটি ঘরে এবং অপরজনকে পাশের একটি মুরগির খামারে নিয়ে যান। সেখানে দুইজনকে মারধর করে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেন এবং সারারাত ধর্ষণ করেন তারা।

শ্রীপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ইমাম হোসেন বলেন, ভিকটিমদের স্বজনদের মাধ্যমে খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়। শনিবার রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।