দিল্লিতে তাজিয়া মিছিল না হলে গণেশ পূজাও প্রকাশ্যে নয়

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের থাবায় গোটা বিশ্ব আজ বিপর্যস্ত। মহামারি আকারে ছড়িয়ে পরা ভাইরাসটির ভ্যাকসিন নিয়ে আশার আলো দেখা গেলেও এখনো দৃশ্যত পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয়নি। আর তাই ভাইরাসের বিস্তার সীমিত রাখতে নানা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সব দেশের সরকার। এমন পরিস্থিতিতেও অর্থনীতির চাকা সচল রাখার চ্যালেঞ্জও নিতে হচ্ছে তাদের।

এসবেরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছর রাজধানী নয়াদিল্লিতে পবিত্র আশুরায় তাজিয়া মিছিল আয়োজনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভারতের হিন্দুত্ববাদী মোদী সরকার। অর্থাৎ সেখানে এবার তাজিয়া মিছিল বের করা যাবে না।

একই সঙ্গে নির্দেশনাটিতে আরও জানানো হয়, এবার প্রকাশ্য গণেশ পূজাও করা যাবে না। মূলত করোনা ভাইরাসের কারণেই বাধ্য হয়ে নিষেধাজ্ঞাটি জারি করল প্রশাসন। চলতি মাসের শেষ দিকে পবিত্র আশুরা আর ২২ অগাস্ট গণপতি উৎসব বা গণেশ পূজা।

 

সরকারি নির্দেশনায় বলা হয়, গণেশ চতুর্দশী উৎসবে প্যান্ডেল খাটিয়ে জনস্থানে গণেশ পূজা করা যাবে না। তাই এবার কোনো রকমের শোভাযাত্রা করার অনুমতিও দেওয়া হবে না। করোনার সময়ে লোককে বাড়িতে উৎসব পালন করতে বলা হচ্ছে।

 

নির্দেশনাটিতে আরও জানানো হয়, মোহররমের সময় কোনো তাজিয়া বা শোভাযাত্রা করা যাবে না। করোনার কারণেই সকলকে অনুরোধ করা হচ্ছে, তারা যেন ঘরে থেকে মোহররম পালন করেন।

 

দিল্লি দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ ইতোমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে, গণেশ চতুর্থীর সময় প্রকাশ্যে বড় পূজা, জমায়েত করলে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে।

সূত্র : ডয়েচে ভেলে