‘তেল বহির্ভূত পণ্য রপ্তানি আয় দিয়েই দেশ চলছে, এটা আমেরিকার গালে চপেটাঘাত’

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, পরমাণু সমঝোতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নয়া ষড়যন্ত্রও ব্যর্থ হবে।

তিনি আজ (বুধবার) তেহরানে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বলেছেন, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে আমেরিকা। পরমাণু সমঝোতাকে ঘায়েল করতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর ইশতেহারের একটি ধারাকে অপব্যবহারের চেষ্টা করছে।

কিন্তু তাতে কোনো লাভ হবে না। কারণ এই ইশতেহারে স্পষ্ট ভাবে বলা হয়েছে পরমাণু সমঝোতার পক্ষগুলো অথবা তাদের যেকোনো এক সদস্যই কেবল ইশতেহারের ওই ধারা ব্যবহার করতে পারবে। কিন্তু আমেরিকা অনেক আগেই পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে। এ কারণে তারা এই ধারা ব্যবহার করতে পারবে না।

রুহানি বলেন, পরমাণু সমঝোতার সব পক্ষই এর আগে আমেরিকার এই ষড়যন্ত্রের নিন্দা জানিয়েছে। আমেরিকা এ ক্ষেত্রে আবারও একা হয়ে পড়েছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, সাম্রাজ্যবাদীরা সব সময় ইরানের সঙ্গে শত্রুতা করে এসেছে। তবে ইরানি জনগণ হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তাদেরকে সব সময় এই বার্তা দিয়ে এসেছে যে, ওয়াশিংটন ইরানের বিষয়ে ভুল করছে।

ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আজীবন থাকবে না। ইরান সরকার তেল বহির্ভূত পণ্য রপ্তানি আয় দিয়ে দেশ চালাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ড. হাসান রুহানি বলেন, ইরান সরকার মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে অকার্যকর করার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের গালে চপেটাঘাত করেছে।