তিউনিসিয়ায় আল-জাজিরার কার্যালয় বন্ধ

তিউনিসিয়ার রাজধানী তিউনিসে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার কার্যালয়ে বিনা নোটিশে অভিযান চালিয়েছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। সংবাদকর্মীদের জোর করে বের করে দিয়েছেন তারা। একইসঙ্গে কার্যালয়ের সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে দেওয়া হয়েছে। তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিচাম মেচিচির সরকারকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট কায়েস সায়িদ। এর পর আজ সোমবার আল-জাজিরার কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়।

আল-জাজিরা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাজধানী তিউনিসে অবস্থিত আল-জাজিরার কার্যালয়ে ২০ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ভারি অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করেন। তারা বিনা নোটিশে অভিযান চালিয়েছেন। আল-জাজিরার ব্যুরো প্রধান লতিফা হাজ্জি বলেন, ‘আমাদের কার্যালয় উচ্ছেদ করতে তাদের কাছ থেকে কোনো প্রকার চিঠি পাইনি।

তিউনিসিয়ার নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তারা দেশের বিচার বিভাগের নির্দেশনা পালন করছেন। নির্দেশনা অনুযায়ী সব সাংবাদিককে চলে যেতে বলা হয়েছে। আল-জাজিরার অভিযোগ, সেখানে থাকা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র তাদের নিতে দেওয়া হয়নি। কর্মকর্তারা কার্যালয়ের সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছেন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারস।

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলা আর দুর্বল অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কারণে বিক্ষোভের মুখে পড়ে তিউনিসিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিচাম মেচিচির সরকার। এ সুযোগে গত রোববার প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করে পার্লামেন্ট বিলুপ্ত করেছেন প্রেসিডেন্ট কায়েস সায়িদ। সায়িদ জানিয়েছেন, নতুন একজন প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় নির্বাহী ক্ষমতা গ্রহণ করবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে হঠাৎ করে ক্ষমতাচ্যুত করার কারণে দেশজুড়ে বিশৃঙ্খলা ছড়িয়ে পড়েছে। এর প্রতিবাদে তার সমর্থকরা পথে পথে অবস্থান নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে দেওয়ার পরই দেশটিতে থাকা আল-জাজিরার কার্যালয়ে সশস্ত্র অভিযান চালিয়েছেন নিরাপত্তা সদস্যরা।

সূত্র: আলজাজিরা।