তালেবান সরকারকে এখনই স্বীকৃতি নয়: রাশিয়া

সম্প্রতি তালেবান কারাপ্রধান মোল্লা নুরুদ্দিন তোরাবি বলেন, আফগানিস্তানের আইন শরিয়ত মেনে তৈরি করা হবে। অপরাধের শাস্তি হিসেবে হাত-পা কেটে নেওয়া বা প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যাকে আইন করে ফিরিয়ে আনা হবে সেখানে। পরের দিনই হেরাতের রাস্তায় দেখা যায় ক্রেনের মাথায় ঝুলছে মৃতদেহ। এই মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রসঙ্গ তুলেই রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভ জাতিসংঘ অধিবেশন চলার মধ্যে শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নিউ ইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, আফগানিস্তানের নতুন সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়ার কথা তারা ভাবছেন না।

নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় তিনি বলেন, ‘তালেবান সরকারকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দেওয়ার যে প্রশ্ন, তা বর্তমান পরিস্থিতিতে ভাবার অবস্থায় নেই।’ তালেবান পররাষ্ট্র মন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি জানান যে প্রাক্তন আফগান দূত গুলাম ইশাকজ়াইকে বহিষ্কার করে সুহেল শাহিনকে জাতিসংঘের আফগান দূত হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে।

যদিও শাহিনকে স্বীকৃতি দেবে কি না জাতিসংঘ, সেটা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করেও লাভরভ রুশ সিদ্ধান্তের কথা স্পষ্ট করে দিয়েছেন। আফগানিস্তানের তালেবান সরকারকে জাতিসংঘ স্বীকৃতি দেবে কি না, সেই সিদ্ধান্ত নেবে জাতিসংঘের ক্রেডেনশিয়ালস কমিটি। এই কমিটির নয় সদস্যের মধ্যে অন্যতম রাশিয়া ।