তালেবানকে প্রতিহত করার ক্ষমতা আফগান সেনাবাহিনী রয়েছে

আফগানিস্তানের বিভিন্ন ফ্রন্টে তালেবানের অগ্রাভিযানের প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়- পেন্টাগনের মুখপাত্র দাবি করেছেন, ওয়াশিংটন আফগানিস্তানের সেনাবাহিনীকে পূর্ণ সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে এবং তারা তালেবানকে প্রতিহত করার ক্ষমতা রাখে।

জন কিরবি গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানিয়ে স্বীকার করেন, আফগানিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিত আরো নাজুক হয়ে পড়েছে এবং গত ৭২ ঘণ্টায় তালেবানের হাতে সেদেশের পাঁচটি প্রদেশের কেন্দ্রীয় শহরের পতন হয়েছে।

আফগান সেনাবাহিনীকে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়ার দাবি করে পেন্টাগনের মুখপাত্র বলেন, এই মুহূর্তে আমরা চলতি মাসের শেষ নাগাদ আফগানিস্তান থেকে সব সেনা সরিয়ে আনার কাজে দৃষ্টি কেন্দ্রীভূত করেছি।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চলতি বছরের ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার কথা ঘোষণা করেছিলেন। ৩১ আগস্টের পর আমেরিকা আফগান সেনাবাহিনীর সমর্থনে তালেবানের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে বিমান হামলা অব্যাহত রাখবে কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে জন কিরবি বলেন, তিনি এ ব্যাপারে আগেভাগে কোনো মন্তব্য করতে চান না।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আফগানিস্তানের বিভিন্ন অঞ্চলে তালেবানের অগ্রাভিযান অব্যাহত রয়েছে। তারা এ সময়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহর ও অঞ্চল আফগান সেনাবাহিনীর কাছ থেকে দখলে নিতে সক্ষম হয়েছে।

আমেরিকা গত ২০ বছর ধরে আফগানিস্তান দখলে রাখলেও পূর্বঘোষিত ‘তালেবান নির্মূলের’ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেনি। দুই দশকে মার্কিন সেনা উপস্থিতি আফগানিস্তানকে যুদ্ধ, সন্ত্রাসবাদ, সহিংসতা, অস্থিতিশীলতা, নিরাপত্তাহীনতা ও হাজার হাজার মানুষের প্রাণহানি ছাড়া আর কিছু দিতে পারেনি।

সূত্রঃ পার্সটুডে