ট্রাম্প প্রেসিডেন্সিকে রিয়েলিটি শো বানিয়ে নিয়েছেন: ওবামা

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা হোয়াইট হাউসে তার উত্তরসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করে বলেছেন, রিপাবলিকান দলীয় এ প্রার্থী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ‘অনুপযুক্ত’।

ওবামা বলেছেন, ট্রাম্প প্রেসিডেন্সিকে রিয়েলিটি শো বানিয়ে নিয়েছেন। তিনি মার্কিন গণতন্ত্রের জন্য হুমকি। যুক্তরাষ্ট্রের প্রাচীন গণতন্ত্র টিকিয়ে রাখতে হলে নভেম্বরের নির্বাচনে মার্কিনিদের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকেই ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ওবামা।

ডেমোক্রেটিক দলের জাতীয় কনভেনশনের তৃতীয় দিন বুধবার এক ভার্চুয়াল ভাষণে এসব কথা বলেন এ সাবেক কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট।

ওবামা বলেন, ট্রাম্প পুরোপুরি অযোগ্য। আমেরিকার গণতন্ত্র টিকিয়ে রাখতে জো বাইডেনকে নির্বাচিত করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র ঝুঁকিতে রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন ডেমোক্র্যাটদলীয় সাবেক এ প্রেসিডেন্ট।

দলের জাতীয় কনভেনশনের তৃতীয় দিন ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে বারাক ওবামা বলেন, নিজের কাজের প্রতি তার কোনো আগ্রহ নেই, সবার সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছাতে কোনো আগ্রহ নেই এবং নিজেকে ও বন্ধুদের ছাড়া কারও সাহায্যে নিজের ক্ষমতা ব্যবহারেও তার আগ্রহ দেখা যায়নি। মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করতে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনের কাজকে আরেকটি রিয়েলিটি শো ছাড়া আর কিছু ভাবছে না ট্রাম্প।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক লাখ ৭০ হাজার মার্কিন নাগরিকের মৃত্যু এবং লাখ লাখ মানুষের বেকারত্বের দায়ও ট্রাম্পের বলে দাবি করেন বারাক ওবামা।

এদিন ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে সিনেটর কমলা হ্যারিসের আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন ঘোষণা করা হয়েছে। এ ঘোষণার মধ্য দিয়ে আমেরিকার কোনো প্রধান দল থেকে কৃষ্ণাঙ্গ ও দক্ষিণ এশীয় (ভারতীয়) বংশোদ্ভূত নারীর ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়নের ইতিহাস রচিত হল।

ফিলাডেলফিয়ার মিউজিয়াম অব আমেরিকা থেকে দেয়া ভার্চুয়াল বক্তৃতায় ওবামা আমেরিকার নাগরিকদের নিজের ক্ষমতার প্রতি সচেতন থাকার আহ্বান জানান।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কার্যক্রম আমেরিকার গণতন্ত্রের জন্য হুমকির কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমান প্রশাসন গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে নির্বাচনে জয়লাভ করতে চায়। নির্বাচনের আর ৭৬ দিন বাকি। এ কয়দিনে আমাদের কর্মকাণ্ড আগামী প্রজন্মের জন্য প্রতিধ্বনিত করবে।

আমেরিকা যে মূল্যবোধ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে, তা রক্ষার জন্য ডেমোক্র্যাট প্রার্থীদের আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি উৎসাহ নিয়ে ভোট দিতে হবে।

ট্রাম্পের আচরণ, নাগরিক আন্দোলন নিয়ন্ত্রণের নামে তার ভূমিকা, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে ট্রাম্পের ব্যবহার নিয়ে তীব্র আক্রমণ করেন ওবামা।