ট্রাম্পের মুখ হাঁসের পশ্চাদদেশের মতো

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভাতিজি মেরি এল ট্রাম্প এবার তার ফুপুর নতুন একটি অডিও ফাঁস করেছেন। সেই অডিওতে শোনা যায়, ট্রাম্পের বোন মেরিয়ানে ট্রাম্প বেরি তার ভাইয়ের পরিবার সম্পর্কে আপত্তিকর ভাষা ব্যবহার করছেন।

জনপ্রিয় মার্কিন টিভি চ্যানেল এক অনুষ্ঠানে শুক্রবার এ অডিও ফাঁস করেন ম্যারি। ৮৩ বছর বয়স্ক ম্যারিয়ানে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল কোর্টের একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারক। ট্রাম্পের বড় বোন। ১৯৮৩ সালে প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যানের সময়ে নিউ জার্সি ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের প্রথম বিচারক ছিলেন তিনি।

ছোট ভাইয়ের পরিবার নিয়ে ভাতিজির সঙ্গে কথোপকথনের ওই অডিওতে মেরিয়ানে বলেন, ট্রাম্পের কথার ঠিক নেই। এখন এক কথা বলে পরক্ষণেই তা অস্বীকার করেন। তার মুখ হাঁসের পশ্চাদদেশের মতো। অন্য এক ক্লিপে তাকে বলতে শোনা যায়, ট্রাম্প শুধু নিজেকে ছাড়া কখনও অন্যের জন্য ভাবেন না তিনি জনগণকে না দেখিয়ে কিছু করেন না।

আর যদি কিছু করেন, তখন বলবেন, দেখ আমি কী করলাম। আমি চমৎকার নই? একেবারেই ছোট মনের মানুষ। জীবনে কেবল একবার গির্জায় গিয়েছিলেন তিনি। মেজ ছেলে এরিক ট্রাম্প সম্পর্কে বলেন, তিনি বলদ টাইপের। জনগণের সামনে এলেই বলদ টাইপের আচরণ করেন। আর ইভাঙ্কা ট্রাম্প তার বাবার মতোই ছোট মনের, নির্লজ্জ। ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষুদ্র রূপ।

তিনি আরও বলেন, আর ডোনাল্ড ট্রাম্প কারও জন্য কিছু করবেন না, যদি না সে ব্যাপারে তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাখেন। তিনি জনগণকে না দেখিয়ে কিছু করেন না। আর যদি কিছু করেন, তখন বলবেন, দেখ আমি কী করলাম। আমি চমৎকার নই? মেরিয়ানে আরও বলেন, অন্যকে দিয়ে পরীক্ষা দিইয়ে (প্রক্সি) বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্পের কোনো নীতি-নৈতিকতা নেই। তিনি মিথ্যুক। তাকে বিশ্বাস করা যায় না। ট্রাম্প যখন নভেম্বরে আবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন, তখন তার নিকটাত্মীয়ের পক্ষ থেকে এমন বিস্ফোরক মন্তব্যের অডিও রেকর্ডিংটি প্রকাশ্যে এলো।

এর আগে ট্রাম্পের ভাতিজা ম্যারি তার লেখা বইয়ে লিখেন, ট্রাম্প চাচা জালিয়াতি করে কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। রেকর্ডিংয়ে ট্রাম্পের শিক্ষাজীবনের সেই বিব্রতকর ব্যাপারটিও উঠে এসেছে। গোপন রেকর্ডিংটি করেছেন ট্রাম্পের ভাতিজি ম্যারি ট্রাম্প।

অডিওটি ২০১৮-১৯ সালে রেকর্ড করা হয়। গত মাসে ম্যারি চাচা ট্রাম্পের সমালোচনা করে একটি আত্মজীবনী বই প্রকাশ করেন। স্মৃতিকথাবিষয়ক বইটির নাম ‘টু মাচ অ্যান্ড নেভার এনাফ : হাও মাই ফ্যামিলি ক্রিয়েটেড দ্য ওয়ার্ল্ড’স মোস্ট ডেঞ্জারাস ম্যান’। কিভাবে ট্রাম্প পরিবার থেকে বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক মানুষটি গড়ে উঠেছে বইটিতে তা উঠে এসেছে।