টিকা উৎপাদনে এক বছরে ২০ বছর এগিয়েছি: ইরান

ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাঈদ নামাকি বলেছেন, এতদিন টিকা তৈরির দিক দিয়ে তার দেশ ৪০ বছর পিছিয়ে ছিল; তবে গত এক বছরের এই দিক দিয়ে ২০ বছরের সমান অগ্রসর হয়েছে ইরান।

তিনি গতকাল (শনিবার) আল-বোর্জে করোনাভাইরাসের ‘স্পুৎনিক-ভি’ টিকার মোড়ক উন্মোচনের অনুষ্ঠানে একথা জানান। প্রতি সপ্তাহে ইরানে স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ক কোনো না কোনো নতুন প্রকল্প উদ্বোধন করা হচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আজ ইরানে যে টিকা উৎপাদিত হচ্ছে তা সম্পূর্ণ নিজস্ব গবেষকদের নিরলস প্রচেষ্টার ফসল।

ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের হাতে গোনা যে কয়েকটি দেশ করোনাভাইরাসের টিকা উৎপাদন করছে ইরান সেগুলোর অন্যতম।

সাঈদ নামাকি বলেন, করোনা মোকাবিলার যত ওষুধ ও চিকিৎসা সামগ্রী বিশেষ করে ভেন্টিলেটর উৎপাদনের দিক দিয়ে গত এক বছরে ইরানে বিশাল বিপ্লব হয়ে গেছে এবং আমরা এখন এসব সামগ্রী রপ্তানি করছি।

নামাকি বলেন, এরপরও যেখানে যতটুকু ঘাটতি আছে তা আমেরিকার নিপীড়নমূলক নিষেধাজ্ঞার ফল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট গত সপতআহে ঘোষণা করেছেন, তিনি ইরানে ওষুধ ও টিকা পাঠাতে বাধা দেবেন না। তার এ বক্তব্য প্রমাণ করে, এতদিন ধরে আমেরিকা এসব মানবিক সামগ্রী পাঠাতেও বাধা দিত।

সূএঃ পার্সটুডে