জম্মু-কাশ্মীরে মাদক ও অস্ত্রের চোরাচালান বন্ধে নারী সৈন্য মোতায়েন

ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর অঞ্চলে মাদক ও অস্ত্রের চোরাচালান বন্ধে মোতায়েন করা হয়েছে আসাম রাইফেলসের নারী সৈন্যদের। পূর্বে পুরুষ সৈন্যদের মাধ্যমে পুরুষদের তল্লাশি চালানো হলেও নারীদের মাধ্যমে যেন এই চোরাকারবার করা না হয় তা নিশ্চিতে এখন থেকে এই নারী সৈন্যরা তল্লাশি চালাবে বলে জানায় দেশটির গণমাধ্যম।

তাদের প্রতিবেদনে জানায়, প্রথমবারের মত কাশ্মীরে আসাম রাইফেলসের নারী সৈন্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইচওয়ান চিন নামের এক সৈন্য জানান, ‘আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে, এই অঞ্চলে অস্ত্র ও মাদক চোরাচালানের জন্য শিশু ও নারীদের ব্যবহার করা হচ্ছে। সেটিকে চিরতর বন্ধ করতে আমরা এখানে এসেছি।

মূলত জম্মু-কাশ্মীর অঞ্চলের কুপওয়ারা জেলায় এই সৈন্য মোতায়েন করা হয়েছে যা পাকিস্তান সীমান্তের বেশ নিকটে অবস্থিত। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এই অঞ্চলটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কেননা লাইন অব কন্ট্রোলের নিকটবর্তী এই জেলায় প্রায় ৪০টি গ্রাম রয়েছে।

এখানে সাধান পোস্টে নিয়মিত গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। কিন্তু এই অঞ্চলের সাধারণ মানুষের এই যানবাহনে প্রায়ই নারীরা থাকেন। তখন পরিপূর্ণরূপে তল্লাশি চালানো কঠিন হয়ে যায়। আর সে কারণেই আসাম রাইফেলসে সৈন্যদের এখানে মোতায়েনকে বেশ গুরুত্ব সহকারে দেখছে ভারত।

এখানে তল্লাশির কাজে নিয়োজিত অপর নারী সৈন্য পূজা জেইন বলেন, ‘এখানকার মানুষ অনেকভাবে আমাদের তল্লাশি কার্যক্রমে সহায়তা করছে। আমরা আসার পর এখানকার নারী ও শিশুরা খুবই খুশি। আমাদের নিরবচ্ছিন্ন তল্লাশি কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়াকে তারা সাধুবাদ জানিয়েছে। তাদের সহায়তার কারণে এখানে আমাদের কাজ করতে কোন সমস্যা হচ্ছে না।