জম্মু-কাশ্মীরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২ গেরিলা নিহত

জম্মু-কাশ্মীরের বান্দিপোরা জেলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে দুই গেরিলা নিহত হয়েছে। নিহত গেরিলাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার হয়েছে।

আজ (রোববার) কাশ্মীর পুলিশের আইজিপি বিজয় কুমার বলেন, সন্ত্রাসীদের মধ্যে একজন স্থানীয়ভাবে প্রশিক্ষিত ছিল। অন্যজন পাকিস্তানে প্রশিক্ষণ পেয়েছে। নিহতের মধ্যে একজন বিজেপি নেতা ওয়াসিম বারী হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর তল্লাশি অভিযান চলছে।

বান্দিপোরার ওয়াতনিরা এলাকায় গেরিলারা লুকিয়ে আছে বলে পুলিশ খবর পেয়েছিল। ওই তথ্যের উপর ভিত্তি করে, পুলিশ, সেনাবাহিনীর ১৪ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস ও আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ জওয়ানরা যৌথভাবে আজ (রোববার) সকালে সংশ্লিষ্ট এলাকা ঘিরে ফেলে তল্লাশি অভিযান চালায়। এ সময়ে, লুকিয়ে থাকা গেরিলাদের পক্ষ থেকে গুলি চালানো শুরু হয়।

নিরাপত্তা বাহিনী তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলে। কিন্তু গেরিলারা নিরাপত্তা বাহিনীর কথায় কান না দিয়ে গুলি চালাতে থাকে। এরপরে নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকেও গুলিবর্ষণ করে পাল্টা জবাব দেওয়া হয়। উভয়পক্ষের মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে সংঘর্ষ চলে। এতে দুই গেরিলা নিহত হয়।

হিন্দি ‘নবভারত টাইমস’ সূত্রে প্রকাশ, নিহত গেরিলাদের লাশ নিরাপত্তা বাহিনী হেফাজতে নিয়েছে। তাদের কাছ থেকে প্রচুর সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনী বলছে, নিহত সন্ত্রাসীরা কোন সংগঠনের সদস্য এবং তারা কোন উদ্দেশ্যে এলাকায় লুকিয়ে ছিল তা নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে। বর্তমানে এলাকায় তল্লাশি চলছে কারণ তাদের আরও এক সঙ্গী এখনো এলাকায় লুকিয়ে আছে বলে মনে করা হচ্ছে।

সূত্রঃ পার্সটুডে