চীন সরকারের নির্দেশের পর কনস্যুলেট খালি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

চীন সরকারের নির্দেশের পর সেদেশের চেংদু শহরে নিজের কনস্যুলেট বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এরইমধ্যে কনস্যুলেট ভবন থেকে মার্কিন পতাকা নামানো হয়েছে এবং কনস্যুলেটের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনে চীনের কনস্যুলেট ৭২ ঘণ্টার (শুক্রবার) মধ্যে বন্ধের নির্দেশ দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর। যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণার পর মূলত বদলা হিসেবে চেংদুতে মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে চীন।

চীন আগামী সোমবারের মধ্যে কনস্যুলেট বন্ধের জন্য সময়সীমা বেধে দিয়েছে। তবে পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে, সময়সীমা শেষ হওয়ার আগেই সব কিছু গুটিয়ে নিয়েছে মার্কিনীরা। মার্কিন কনস্যুলেট ভবন এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্দেশের পরপরই চীন বলেছিল, তারা এই ভয়ংকর ও বিচারবহির্ভূত পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেবে।

এছাড়া চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলেছে, চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্ক বর্তমানে যে অবস্থায় পৌঁছেছে, তা বেইজিং প্রত্যাশা করে না। তবে যা কিছু ঘটেছে, এর সব কিছুর জন্য যুক্তরাষ্ট্রই দায়ী।সামরিক ও অর্থনৈতিকসহ বিভিন্ন ইস্যুতে চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।