চীনের নয়া যুদ্ধ-তরী, নিমেষেই ধ্বংস করবে দুটি মার্কিন জাহাজ

উত্তেজনা বেড়েই চলছে দক্ষিণ চীন সাগরে। এই এলাকা ঘিরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক চরমে পৌঁছেছে। যেকোনো সময় লেগে যেতে পারে যুদ্ধ। উপযাজক হয়ে যুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে আমেরিকা আর এদিকে এক বিন্দুও ছাড় দিতে নারাজ জিনপিং।

দক্ষিণ সাগরে এবার ‘শিপ কিলার মিসাইল’ কে কার্যকরি করে চিনের নৌসেনা তৈরি হতে শুরু করেছে। চীনের রিয়ার অ্যাডমিরাল একথা জানিয়েছেন। তার দাবি, চীনের ডিএফ ২৬ ব্যালাস্টিক ও ক্রুজ মিসাইল বহু ধরনের ক্ষমতা রাখে।

চীনের হুমকি এই নয়া আধুনিক সমরাস্ত্র নিমেষে দুটি মার্কিন জাহাজকে ধ্বংস করতে পারে বলে চিন হুমকি দিয়ে রেখেছে।দক্ষিণ চীন সাগরে যেভাবে যুদ্ধের পারদ চড়তে শুরু করেছে। তাতে চীনের এই বার্তা বেশ প্রাসঙ্গিক বলেই মনে করা হচ্ছে।

২০১৮ সালে চীন দাবি করেছিল, সাগরে যে মিসাইল নিয়ে তারা নামছে, তাতে চোখের পলকে ৫ হাজার মার্কিন সেনা ধ্বংস হতে পারে। উল্লেখ্য, সেই যুদ্ধাস্ত্র নিয়ে এবার একাধিক খবর চিনের গ্লোবাল টাইমসে আসতে শুরু করেছে। যা ঘিরে তেতে উঠছে দক্ষিণ চিন সাগর সংঘাত।

এদিকে তাইওয়ান প্রণালী ও মার্কিন য়ুদ্ধজাহাজ সদ্য মার্কিন যুদ্ধজাহাজ তাইওয়ান প্রণালী দিয়ে পার হতে এক চুল জমিও ছাড়ছেনা চীন। আমেরিকাকে পাল্টা হুমকি দিয়ে চীন সাফ জানিয়েছে যে তাইওয়ানের দিকে তাকালেই চীনা যুদ্ধাস্ত্রের ব্যবহারে উদ্যোগী হবে বেজিং।