গাজায় মেয়াদোত্তীর্ণ টিকা পাঠিয়েছে ইসরায়েল

গাজা উপত্যকায় ৫০ হাজার ডোজ মেয়াদোত্তীর্ণ করোনার টিকা পাঠিয়েছে ইসরায়েল। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, গাজা উপত্যকায় পাঠানোর জন্য রাশিয়ায় তৈরি টিকাগুলো ইসরায়েলকে দেওয়া হলেও তেলআবিব এগুলো অনুপযুক্ত অবস্থায় রেখে দিয়েছিল। এ ছাড়া টিকার চালানটি ঠিক সময়ে গাজায় পৌঁছাতে বাধা দেয় ইসরায়েল।

সম্প্রতি গাজার কারেম আবু সালেম ক্রসিং দিয়ে রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক লাইট টাইপের টিকার চালানটি অবরুদ্ধ এ উপত্যকায় পাঠানো হয়। কিন্তু নিরাপত্তা পরীক্ষায় দেখা যায়, টিকাগুলোর মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। এর আগে ইসরায়েলি গণমাধ্যম খবর দিয়েছিল, মেয়াদোত্তীর্ণ হতে যাওয়া ভ্যাকসিনগুলো প্রথমে তেলআবিব পশ্চিম তীরের স্বশাসন কর্তৃপক্ষকে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ ওই চুক্তি বাতিল করে দেয়। এর পরই চালানটি গাজা উপত্যকায় পাঠায় দখলদার ইসরায়েল।

সর্বশেষ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গাজা উপত্যকায় এখন পর্যন্ত এক লাখ ৪৭ হাজার ৩৬৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে এক হাজার ২২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া অবরুদ্ধ এই উপত্যকায় প্রায় ২০ লাখ মানুষ বসবাস করলেও এ পর্যন্ত মাত্র তিন লাখ ৫৪ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসের টিকা নিতে পেরেছেন।

পশ্চিম তীর ও গাজা উপত্যকায় বসবাসরত ফিলিস্তিনি নাগরিকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকা সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ইসরায়েল চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। অথচ তেলআবিব তার নিজের প্রাপ্তবয়স্ক প্রায় সব নাগরিককে টিকার আওতায় এনেছে এবং অনেকে এরই মধ্যে বুস্টার ডোজও নিয়ে ফেলেছে।

সূত্র : প্রেস টিভি।