গরু পাচারকারী সন্দেহে ভারতীয় কিশোরকে হত্যা করে বিপাকে বিএসএফ

গরু পাচারকারী সন্দেহে এবার নিজেদের দেশের এক কিশোরকে গুলি করে হত্যা করল ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কোচবিহারের বালাভূতে।

এ দিকে ঘটনার পর থেকে বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সেখানকার মানুষজন দফায় দফায় বিএসএফের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন।

সংবাদমাধ্যমটি তাদের প্রতিবেদনে জানায়, গরু পাচারকারী সন্দেহে ওই কিশোরকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বিএসএফের জওয়ানরা। রবিবার (৮ আগস্ট) দিবাগত রাতে বাংলাদেশে পাচারের উদ্দেশ্যে প্রায় ৮০টি গরু কোচবিহারের তুফান গঞ্জের বালাভূত এলাকায় জড়ো করেছিল পাচারকারীরা।

এমন খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করে বিএসএফের ৬২ নম্বর ব্যাটালিয়ন। যদিও বিএসএফের উপস্থিতি টের পেয়ে পাচারকারীরা বোমা মেরে ঘটনা স্থল ত্যাগ করে। পরে বিএসএফ সদস্যরা একটি বাড়ির সামনেই শাহিনুরকে দেখতে পেয়েই এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই ওই কিশোরের মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা বিক্ষোভ দেখালে বিএসএফ জওয়ানরা এলাকা ছেড়ে চলে যায়।

 

জানায়, এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। তাদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে স্থানীয়রা। মরদেহ উদ্ধারেও বাধা দেয় উত্তেজিত জনতা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় পুরো এলাকা। দীর্ঘক্ষণ পর পুলিশের আশ্বাসে কিছুটা শান্ত হয় পরিস্থিতি।

 

স্থানীয়দের ভাষ্য, তাঁতের শাড়ি তৈরির কাজে যুক্ত ওই কিশোরকে অন্যায়ভাবে হত্যা করা হয়েছে। অবশ্যই অভিযুক্ত জওয়ানদের শাস্তি দিতেই হবে। তবে এ বিষয়ে বিএসএফের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের বিবৃতি পাঠানো হয়নি।