গভর্নরের হুশিয়ারির পর কান্দাহারে ভয়াবহ বিস্ফোরণ

আফগানিস্তানের কান্দাহারের গভর্নর রুহুল্লাহ খানজাদা বলেছিলেন, আমি কান্দাহারের বাসিন্দাদের নিশ্চয়তা দিচ্ছি, আমরা যতক্ষণ জীবিত আছি তালেবানকে শহরের ভেতরে ঢুকতে দেব না।

শুক্রবার তিনি এ ঘোষণা দেন। তার এ ঘোষণার পরদিন শনিবার সকালেই প্রদেশের দামান জেলায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ২ জন নিহত হন। আহত হয়েছেন আরও তিনজন। যারমধ্যে দুই পুলিশ সদস্যও রয়েছে।

এসব তথ্য জানিয়েছে আফগানিস্তানের গণমাধ্যম টোলো নিউজ। পুলিশ এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, শনিবার আফগানিস্তানের কাবুল এবং কান্দাহার প্রদেশে পৃথক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কাবুলের পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, কাবুলের ৮ নম্বর জেলার তপা-ই-কারতে নাও এলাকায় সকাল ৯টা ১০ মিনিটের দিকে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে দুইজন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

অপরদিকে, কান্দাহার প্রদেশের দামান জেলায় শনিবার সকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও তিনজন। যারমধ্যে পুলিশের দুই সদস্যও রয়েছেন।

নিরাপত্তা বাহিনীর একটি সূত্র জানায়, দামান জেলার গভর্নর পীর মোহাম্মদকে বহন করা গাড়ি লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তবে পীর মোহাম্মদ সুস্থ আছে। এখন পর্যন্ত কেউই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

এর আগে শুক্রবার সকালে তালেবানের যোদ্ধারা কান্দাহার শহরে হামলা চালিয়ে দুটি পুলিশ চেকপোস্টের নিয়ন্ত্রণ নেয়। কিন্তু নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা দাবি করছেন, তাদের প্রতিরোধের কারণে তালেবান যোদ্ধারা অগ্রসর হতে পারেননি।

এরপর কান্দাহারের গভর্নর রুহুল্লাহ খানজাদা বলেছিলেন, এটা (তালেবানের হামলা) এখানে বড় কোনো সমস্যা নয়। আমি কান্দাহারের বাসিন্দাদের নিশ্চয়তা দিচ্ছি। আমরা যতক্ষণ জীবিত আছি তালেবানকে শহরের ভেতরে ঢুকতে দেব না। ইতোমধ্যে প্রদেশের ১০টিরও বেশি জেলা তালেবান দখলে নিয়েছে বলে জানানো হয় খবরে।