গণপ্রতিবাদের মুখে শিকাগো শহর থেকে সরানো হলো কলম্বাসের ২ ভাস্কর্য

গণপ্রতিবাদের মুখে আমেরিকার আবিষ্কারক বলে পরিচিত ক্রিস্টোফার কলম্বাসের আরও দু’টি ভাস্কর্য সরিয়ে ফেলা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরের গ্র্যান্ট পার্ক ও আরিগো পার্ক থেকে ভাস্কর্য দু’টি সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছে শহর কর্তৃপক্ষ।

কয়েকদিন আগে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীরা কলম্বাসকে খুনি ও বর্ণবাদী আখ্যা দিয়ে শিকাগোর গ্র্যান্ট পার্কে থাকা তার ভাস্কর্য উপড়ে ফেলার চেষ্টা করেছিল। এরপরই শহর কর্তৃপক্ষ শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোরের দিকে ওই পার্ক থেকে কলম্বাসের ভাস্কর্যটি অপসারণ করে।

গ্র্যান্ট পার্কের পাশাপাশি আরিগো পার্কে থাকা কলম্বাসের ভাস্কর্যও সরিয়ে নেওয়া হয়। এ সময় বহু মানুষকে উল্লাস প্রকাশ করতে দেখা যায়। পরে শিকাগোর মেয়র লরি লাইটফুট এক বিবৃতিতে জানান, তার নির্দেশেই ভাস্কর্য দুটি অস্থায়ীভাবে সরানো হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, কলম্বাসের মূর্তি সরানোর পাশাপাশি শিকাগো কর্তৃপক্ষ এখন শহরটিতে থাকা অন্য সব মূর্তি এবং ভাস্কর্যের বিষয়ও পুনর্মূল্যায়ন করবে।

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে চলমান বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের মধ্যে জুনে মিনেসোটার সেইন্ট পলে কলম্বাসের ১০ ফুট দীর্ঘ একটি মূর্তি বিক্ষোভকারীরা উপড়ে ফেলে। ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডেও কলম্বাসের একটি মূর্তি উপড়ে আন্দোলনকারীরা পাশের হ্রদে ফেলে দেয়। বস্টনেও একটি ভাস্কর্যের মাথা আলাদা করে ফেলা হয়।

মার্কিন সরকার কলম্বাসকে মহানায়ক হিসেবে মনে করলেও সেদেশের আদিবাসী ও অশেতাঙ্গ মানুষেরা তাকে ঘাতক ও বর্ণবাদী বলে জানে। ইতিহাস বলছে, গণহত্যা ও নির্যাতন চালিয়ে আমেরিকা মহাদেশের আদি বাসিন্দাদের হটিয়ে শ্বেতাঙ্গ ইউরোপীয়দের ঔপনিবেশিক শাসন প্রতিষ্ঠা এবং দাস প্রথা চালুর মূল নায়ক হচ্ছে ক্রিস্টোফার কলম্বাস।