খুজিস্তান নিয়ে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপমূলক বক্তব্য: তীব্র নিন্দা জানাল ইরান

ইরানের খুজিস্তান প্রদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনার যে বক্তব্য দিয়েছেন তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তেহরান। ইরান বলেছে, হাই কমিশনার মিশেল্লে ব্যাচেলেট খুজিস্তানের ঘটনাপ্রবাহ সম্পর্কে যে বিবৃতি দিয়েছেন তাতে ভুল তথ্যে ভরা কাল্পনিক অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে যা দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে এ মন্তব্য করে বলেছেন, খুজিস্তান প্রদেশের জনগণের দুর্দশা দূর করার জন্য ইরানের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তা উপেক্ষা করে জাতিসংঘের এই কর্মকর্তা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বিবৃতি দিয়েছেন। তার এ বিবৃতি যতটা না একজন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কর্মকর্তার বক্তব্য বলে মনে হয়েছে তার চেয়ে বেশি একটি রাজনৈতিক বিবৃতি বলেই প্রতীয়মান হয়েছে।

খাতিবজাদে বলেন, খুজিস্তানের মূল সমস্যা পানি সংকট যা বৃষ্টিহীনতা ও খরার মতো প্রাকৃতিক কারণে সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া, ইরানের ওপর পাশ্চাত্যের কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কারণে প্রদেশটির পানি খাতে প্রয়োজনীয় পুঁজি বিনিয়োগ করা যায়নি। কাজেই তিনি এ ধরনের রাজনৈতিক ও বিদ্বেষপ্রসূত বিবৃতি প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকতে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনারের প্রতি আহ্বান জানান।

ইরানের দক্ষিণাঞ্চলে চলতি বছর কম বৃষ্টিপাত ও প্রচণ্ড গরমের কারণে খুজিস্তান প্রদেশে পানির স্বল্পতা দেখা দিয়েছে। খাল-বিলের পানি শুকিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি ভূগর্ভস্থ পানির উচ্চতা কমে যাওয়ার কারণে প্রদেশের জনগণ তীব্র পানির সংকটে ভুগছেন। সম্প্রতি প্রদেশের কোথাও কোথাও পানির দাবিতে বিক্ষোভ পর্যন্ত দেখিয়েছেন স্থানীয় লোকজন।

তবে সরকারের পক্ষ থেকে কারুন বাঁধের বিভিন্ন গেট খুলে দিয়ে খুজিস্তানের পানি সংকটের সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় খুজিস্তান প্রদেশের জনগণের সমস্যা সমাধানের জন্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলোকে কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন।

সূত্রঃ পার্সটুডে