কোম্পানীগঞ্জে গোলাগুলি, কাদের মির্জার ৮ অনুসারী গুলিবিদ্ধ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিবদমান দ্বন্দ্বের জের ধরে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় কাদের মির্জা অনুসারী আটজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। আজ শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কাদের মির্জা ও বাদল অনুসারীদের মধ্যে বসুরহাট পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের হড়ান্নাগো বাড়ির সামনের সড়কে এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধরা হলেন, পৌরসভা ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাপাদক দেলোয়ার হোসেন (৪৭), ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি ফযসাল আহমেদ জিসান (২৩) শামছুল হকের ছেলে সবুজ (৪০), আবদুল লতিফ দুলালের ছেলে রুহুল আমিন সানি (৩০), দেলোয়ার হোসেন (২৮), পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের এনামূল হকের ছেলে দেলোয়ার হোসেন সুমন (২৭), মোস্তফার ছেলে মাইন উদ্দিন কাঞ্চন (৪২) ও চরকাঁকড়া ইউনিয়নের নতুন বাজার এলাকার মোশারফ হোসেনের ছেলে দিদার (৩৫)। এরা সবাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যা থেকে কোম্পানীগঞ্জের বিভিন্ন ইউনিয়নে ও বসুরহাট পৌরসভার প্রত্যেক ওয়ার্ডে কাদের মির্জার অনুসারীরা তার পক্ষে মিছিল করে। বসুরহাট পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডে কাদের মির্জার অনুসারীরা সন্ধ্যা ৭টার দিকে মিছিল করতে গেলে তার বিরোধী বাদল সমর্থকরাও মিছিল বের করে। প্রথমে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। গোলাগুলিতে কাদের মির্জা অনুসারী ছয়জন গুলিবিদ্ধ হয়। তবে প্রতিপক্ষ বাদল অনুসারী কারো আহত হওয়ার খবর এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৮ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। গুলিবিদ্ধরা কাদের মির্জার অনুসারী হিসেবে পরিচিত। তিনি আরো জানান, গুলিবিদ্ধদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হামলাকারীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।