কৃষ্ণসাগরে রাশিয়া ও ন্যাটোর পাল্টাপাল্টি সামরিক মহড়া

কৃষ্ণসাগরে আমেরিকা এবং ন্যাটো সামরিক জোট নৌ মহড়া চালিয়েছে। জবাবে রাশিয়ার কৃষ্ণসাগরের নৌবহর ক্রিমিয়া উপদ্বীপের কাছে ব্যাপকভিত্তিক সামরিক মহড়া চালায়। দুই পক্ষের মধ্যে যখন প্রতিদিন উত্তেজনা বাড়ছে তখন এই পাল্টাপাল্টি মহড়া পরিচালিত হলো।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গতকাল এক বিবৃতিতে বলেছে, ক্রিমিয়া উপদ্বীপ বসানো বল অ্যান্ড ব্যাস্টন উপকূলীয় ক্ষেপণাস্ত্র ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা থেকে কৃষ্ণ সাগরের ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। শত্রুর কল্পিত জাহাজ ধ্বংস করার লক্ষ্য নিয়ে কৃষ্ণ সাগরের কৌশলগত পানি সীমায় এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়।

রাশিয়ার জাতীয় প্রতিরক্ষা নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র কৃষ্ণসাগরে আমেরিকার ডেস্ট্রয়ার ও যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে ব্রিটেনের গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার ও নেদারল্যান্ড নৌবাহিনীর ফ্রিগেট শণাক্ত করার পর রুশ নৌবাহিনী মহড়া শুরু করে।

ইউক্রেন ও আমেরিকার যৌথ উদ্যোগে ‘সী ব্রিজ’ নামে ন্যাটো জোটের মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া, আগামী ২৮ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত কৃষ্ণসাগরে টানা বার্ষিক মহড়া চলবে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ন্যাটো জোটের ওই মহড়ায় প্রায় চার হাজার সেনা, ৪০টি যুদ্ধজাহাজ, বোট ও সহযোগী নৌযান, ৩০টি এরিয়াল ইউনিট এবং ১০০’র বেশি সামরিক যান যোগ দেবে। এ মহড়ার প্রধান অংশগ্রহণকারী দেশ হবে ইউক্রেন, আমেরিকা, কানাডা, ব্রিটেনও তুরস্ক।

সূত্রঃ পার্সটুডে