কুষ্টিয়ায় দেড় মাসের শিশু করোনায় আক্রান্ত

কুষ্টিয়ায় এবার দেড় মাসের এক শিশু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ওই শিশুকে মঙ্গলবার (২২ জুন) কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এত কম বয়সী করোনা শনাক্ত রোগী কুষ্টিয়ায় এটিই প্রথম। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার এম এ মোমেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, সোমবার সর্দি-কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত শিশু প্রিন্সকে পরিবারের লোকজন হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসার এক পর্যায়ে তার নমুনা সংগ্রহ করে হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠান। মঙ্গলবার ওই শিশুটির শরীরে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে।

হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের কর্তব্যরত চিকিৎসক ইফতেখার হাসান জানান, শিশুটির অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে ওই চিকিৎসক জানান। শিশুটির পিতা আকাশ আলী জানান, কয়েকদিন ধরে শিশু প্রিন্স ঠাণ্ডা-জ্বরে ভুগছিল। ছোট্ট এ শিশুটি করোনায় আক্রান্ত তা প্রথমে তিনি বুঝতে পারেননি। পরে পরীক্ষায় করোনা ধরা পড়েছে।

কুষ্টিয়া পৌর এলাকায় প্রথম দফা সাত দিনের বিধি-নিষেধ আরোপের পরও সংক্রমণ ঊর্ধ্বগতি থাকায় পরবর্তীতে জেলা জুড়ে সাত দিনের কঠোর লকডাউন শুরু হয়েছে। জেলায় সংক্রমণ ঊর্ধ্বগতি ও মৃত্যুহার ক্রমেই বাড়ছে।

১০০ শয্যার করোনা ওয়ার্ডে রোগী তিল ধারণের ঠাঁই নেই। করোনা সংক্রমণ জেলায় ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। শহর থেকে এখন জেলার প্রতিটি গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে ভাইরাস। অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না বেরুনোর জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বিধি-নিষেধ জারি করেছেন।