কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাকে বোমা মেরে উড়িয়ে দিল পাকিস্তান

ভূস্বর্গ খ্যাত ভারত নিয়ন্ত্রিত রাজ্য জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ভারত ও পাকিস্তানের সেনা সদস্যদের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সময় পাক সেনাদের বোমার আঘাতে এক ভারতীয় জওয়ানের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) উভয় পক্ষের মধ্যে এ গোলাগুলি হয়। নিহত জওয়ানের নাম রাজেশ কুমার। তিনি জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার (জেসিও) পদে নিয়োজিত ছিলেন।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিবৃতিকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, গত কয়েকদিনে এটি দ্বিতীয় এমন ঘটনা। এর আগে ৩০ আগস্ট নওশেরায় পাকিস্তানি সেনার গুলিতে নিহত হন ভারতীয় সেনাবাহিনীর আরেক জেসিও।

কয়েকদিন ধরে অশান্ত হয়ে রয়েছে জম্মু-কাশ্মীর। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবরও ক্রমশ হামলা বাড়ছে। গত কয়েকদিন ধরেই জম্মু-কাশ্মীরের বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে ভারতীয় সেনারা। এনকাউন্টারে বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজন জঙ্গির মৃত্যুও হয়েছে।

অন্যদিকে সীমান্তে মিলেছে সুড়ঙ্গের হদিস। এরমধ্যেই দুই দেশের সেনাদের সংঘর্ষ হতে দেখা গেছে। ভারতের দাবি, কয়েকদিন ধরে একাধিকবার সীমান্তে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তানি সেনারা।

পুঞ্চ জেলার বালাকোট সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গুলি চালিয়েছিল তারা। এছাড়া কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলায় নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর এবং রাজৌরি ও পুঞ্চ জেলার দক্ষিণে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে।

ভারতীয় সেনাদের দাবি, বুধবার তারকুণ্ডি সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গুলি চালায় পাকিস্তানি সেনারা। উভয় পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির সময় ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা গুলিবিদ্ধ হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়।

তাছাড়া এদিন রাজৌরির কেরি সেক্টরেও সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। এদিন পাকিস্তানি বাহিনী নৌশেরার কালশিয়ান, খানগের, ভওয়ানী এলাকায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর ফরওয়ার্ড পোস্টগুলোকে নিশানা করেছিল।

এর আগে রবিবার (৩০ আগস্ট) সকালেও পাকিস্তান সেনাবাহিনী জম্মু ডিভিশনের রাজৌরি জেলায় নৌশেরা সেক্টর বরাবর অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে বলে অভিযোগ করেছিল ভারত।

ওইদিন কালসিয়ান এলাকাতেই গুলিবিদ্ধ হন ভারতীয় জেসিও। গুরুতর আহত অবস্থায় সঙ্গে সঙ্গে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সেনা হাসপাতালে। সেখানেই কিছুক্ষণ পর মৃত্যু হয় তার।

সূত্র: দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস