কাশ্মিরে হামলায় ৩ ভারতীয় সেনা নিহত

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে গত এক সপ্তাহে তিনবার পুলিশ এবং সিআরপিএফের উপর আক্রমণ চালালো বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। সোমবার চালানো হামলায় নিহত হয়েছে তিন ভারতীয় সেনা।

জানা যায়, সোমবার চালানো অতর্কিত হামলায় প্রাণ হারায় দুই জন সিআরপিএফ জওয়ান এবং এক জন পুলিশ অফিসার। ঘটনার পরে গোটা এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে। ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে জানানো হয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলাকারীরা ওই এলাকাতেই নাকি ‘গা ঢাকা’ দিয়ে রয়েছে।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের বারামুল্লা জেলা বরাবরই ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য স্পর্শকাতর এলাকা। এই অঞ্চলে একাধিকবার কাশ্মিরি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে ভারতীয় পুলিশ এবং সেনা জওয়ানদের লড়াই হয়েছে। তবে সোমবারের ঘটনা অভূতপূর্ব।

সিআরপিএফ জানিয়েছে, এ দিন সকাল থেকেই বারামুল্লার ক্রিরি সেক্টরে নওগাম বাইপাসের উপর ব্যারিকেড তৈরি করেছিল সিআরপিএফ এবং পুলিশের যৌথ বাহিনী। একের পর এক গাড়িতে তল্লাশি চালানো হচ্ছিল।

সে সময়ই অতর্কিতে নিরাপত্তারক্ষীদের উপর এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে কাশ্মিরি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা পজিশন নেয়ার আগেই দুই সিআরপিএফ জওয়ান এবং এক পুলিশ অফিসার গুলিবিদ্ধ হন।

তবে ভারতীয় যৌথ বাহিনী পাল্টা আক্রমণ করার আগেই হামলাকারীরা নিরাপদে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বলে জানা গিয়েছে। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই তাদের মৃত্যু হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, যেখানে এই ঘটনা ঘটেছে, সেখানে সিসিটিভি ছিল। ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের শনাক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তাদের দাবি- চেকপোস্টের নিরাপত্তারক্ষীরা ‘যথেষ্ট সতর্ক’ ছিলেন না। তারই সুযোগ নিয়েছে কাশ্মিরি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা।

ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রচুর সেনা পাঠানো হয়েছে এলাকায়। গোটা অঞ্চল ঘিরে ফেলা হয়েছে। শুরু হয়েছে তল্লাশি অভিযান।

উল্লেখ্য, গত এক সপ্তাহের মধ্যে এই নিয়ে তৃতীয়বার কাশ্মিরে হামলার শিকার হলো ভারতীয় নিরাপত্তারক্ষীরা। এর আগে গত ১৪ আগস্ট কাশ্মিরের নওগামে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় দুই ভারতীয় পুলিশ অফিসার নিহত হয়েছিলেন।

গত বছর কাশ্মিরের বিশেষ আইন তুলে দিয়ে নরেন্দ্র মোদির সরকার ঘোষণা করেছিল, এর ফলে সেখানে কাশ্মিরি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কার্যকলাপ বন্ধ হবে। বিদেশি কূটনৈতিক অতিথিদেরও সেই একই কথা বলার চেষ্টা করেছিল মোদি সরকার।

কিন্তু বিরোধী রাজনীতিকদের বক্তব্য, গত এক বছরে কাশ্মিরে সহিংস কার্যকলাপ বেড়েছে। গত এক বছরে প্রায় ১৫০ জন বিচ্ছিন্নতাবাদীর মৃত্যু হয়েছে উপত্যকায়। তার মধ্যে মাত্র কয়েকজন ছাড়া বাকি সকলেই কাশ্মিরের।

দক্ষিণ কাশ্মিরে বিচ্ছিন্নতাবাদী কার্যকলাপ বেড়েছে বলেই বিশেষজ্ঞদের অভিমত। তারই জেরে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর একের পর এক হামলার ঘটনা ঘটছে।