কাশ্মিরে বিজেপি নেতার মরদেহ উদ্ধার পরবর্তি অভিযানে নিহত ৪

ভারত শাসিত কাশ্মিরে নিখোঁজ থাকা এক বিজেপি নেতার মরদেহ উদ্ধার করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। কাশ্মির পুলিশ বলছে, ওই পঞ্চায়েত সদস্য নিসার আহমেদ ভাট দশ দিন আগে নিখোঁজ হলে শুক্রবার একটি আপেল বাগানে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

এরপরই সোফিয়ান জেলার কিলোরা গ্রামে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান চালানো হয়। এতে চার জন নিহত এবং অপর একজন আত্মসমর্পণ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সম্প্রচারমাধ্যম প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। কাশ্মির পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে একটি আপেল বাগান থেকে বিজেপি নেতা নিসার আহমেদ ভাটের মরদেহ উদ্ধারের পর এই ঘটনায় জড়িতদের অবস্থানের সুনির্দিষ্ট তথ্য পায় তারা। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সোপিয়ান জেলার ওই গ্রামে অভিযান চালানো হয়।

কাশ্মির পুলিশের মহাপরিদর্শক বিজয় কুমার জানান, অভিযানে নিহত চার জনের মধ্যে দুই জনই নিসার ভাট অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় জড়িত। পুলিশের সঙ্গে এই অভিযানে সেনা ও আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যরাও যোগ দেয়।

অভিযানের সময় সন্দেহভাজন এক অপরাধী আত্মসমর্পণ করেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানায় পুলিশ।

উল্লেখ্য, কাশ্মিরে সশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠনগুলোর কেউ কেউ সরাসরি স্বাধীনতার দাবিতে আন্দোলনরত। কেউ কেউ আবার কাশ্মিরকে পাকিস্তানের অঙ্গীভূত করার পক্ষে।

ইতিহাস পরিক্রমায় ক্রমেই সেখানকার স্বাধীনতা আন্দোলনের ইসলামীকিকরণ হয়েছে। এখন সেখানকার বিদ্রোহী সংগঠনগুলোর মধ্যে হিজবুল মুজাহিদীন সবথেকে সক্রিয়।

তবে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ কাশ্মিরের জাতিমুক্তি আন্দোলনকে বিভিন্ন জঙ্গিবাদী তৎপরতার থেকে আলাদা করে শনাক্ত করে না। সন্দেহভাজন জঙ্গি নাম দিয়ে বহু বিদ্রোহীর পাশাপাশি বেসামরিকদের হত্যার অভিযোগ রয়েছে ভারতীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে।