কান্দাহার রেডিও স্টেশনও তালেবানের দখলে

শনিবার সকালে কান্দাহারের রেডিও স্টেশনের দখল নিয়েছে তালেবান। মার্কিন সেনা আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার তিন সপ্তাহের মধ্যেই দেশের একের পর এক প্রদেশ তালেবান দখলে চলে আসছে। ইতিমধ্যেই তারা আফগানিস্তানের উত্তর, পশ্চিম ও দক্ষিণের একটি বিস্তীর্ণ এলাকা এক সপ্তাহের মধ্যেই নিজেদের দখলে এনে ফেলেছে। রাজধানী কাবুল থেকে এখন মাত্র ৫০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে তালেবানরা।

আফগানিস্তানে তালেবানের মোকাবিলায় বছরের পর বছর ধরে ঘাঁটি গেড়ে পড়েছিল মার্কিন সেনাবাহিনী। আফগান সেনাকে আরও শক্তিশালী করতে কয়েকশো বিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ করেছে আমেরিকা। তা সত্ত্বেও আমেরিকার সেনাবাহিনী আফগানিস্তান ছাড়তে শুরু করাতেই চরম বিপদ দেশে। মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই আফগানিস্তানের অধিকাংশ এলাকায় এখন নিজেদের আধিপত্য কায়েম করে ফেলেছে তালেবান সৈন্যরা।

রবিবারের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে দূতাবাসের কর্মীদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার তৎপরতা নিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। শনিবার কান্দাহারের রেডিও স্টেশনের দখল নেওয়ার পরে তালেবানের তরফে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। সেই ভিডিও-তে এক তালিবানি জঙ্গি শহরের প্রধান রেডিও স্টেশনটি দখল করার ঘোষণা করেছে।

রেডিও স্টেশনটির নামও বদলে ফেলেছে তালেবানরা। নতুন নামকরণ করা হয়েছে ভয়েস অব শরিয়া অথবা ইসলামী আইন। ওই ভিডিও-তে তালেবানের ওই সদস্য জানিয়েছে, এখন থেকে সরকারি কর্মচারীরা ইসলামী পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরানের সংবাদ, রাজনৈতিক বিশ্লেষণ এবং আবৃত্তি প্রচার করবেন। এই রেডিও স্টেশনে আর গান-বাজনার অনুষ্ঠান হবে না। তবে কান্দাহারের এই রেডিও স্টেশনটিতে পূর্বতন কর্মীদের ছাঁটাই করা হবে কিনা তা এখনও স্পষ্ট করেনি তালেবান। ইতিমধ্যেই তালেবান ফতোয়া মেনে কান্দাহারের বাসিন্দারা নির্দিষ্ট একটি ধরন মেনে পোশাক পড়তে শুরু করেছেন।