কাতারে করোনা পরীক্ষা, ফুটবল দলের সবাই নেগেটিভ

কাতারে পৌঁছে কালই অনুশীলনে নেমে পড়েছেন ফুটবলাররা। স্বস্তির খবর হলো সেই অনুশীলনে দলের প্রত্যেককে পেয়েছেন জেমি ডে। কারণ করোনা পরীক্ষায় সবাই নেগেটিভ হয়েছেন যে। তাতে জামাল ভুঁইয়াদের মাঠে নেমে পড়তে কোনো সমস্যাই হয়নি।

পরশু দুপুরে দোহায় পা রাখে জাতীয় ফুটবল দল। বিমানবন্দরে সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে হোটেলে পৌঁছাতে পৌঁছাতে বিকেল। সন্ধ্যায় দলের প্রত্যেক সদস্যের করোনা পরীক্ষা হয়। সেই রিপোর্ট এসেছে কাল দুপুরে। এর আগে হোটেলেই খেলোয়াড়রা স্ট্রেচিং করেছেন। নেগেটিভ রিপোর্ট পেয়ে বিকেলেই শুরু হয়েছে তাঁদের মাঠের অনুশীলন। কাতারে আগামী ৩, ৭ ও ১৫ জুন যথাক্রমে আফগানিস্তান, ভারত ও ওমানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শেষ তিন ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল।

গত মার্চে নেপালে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট খেলে ফেরার পর গত মাসে লিগের দ্বিতীয় পর্বের কিছু ম্যাচ খেলেছেন ফুটবলাররা। বিশ্বকাপ বাছাই নিয়ে শুরুতে কাতার ও পরে সৌদি আরবে ক্যাম্প করার কথা থাকলেও তা হয়নি। শেষ পর্যন্ত ঢাকাতেই অনুশীলন এবং শেখ জামালের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে কাতারে গেছে জেমির দল। জামালের বিপক্ষে একমাত্র ওই ম্যাচটিতে ২-২ গোলে ড্র করে জাতীয় দল।

সেই ম্যাচে তিন সেন্টার ব্যাক রেখে ৫-৪-১ ফরমেশনে খেলিয়েছেন জেমি। নেপালে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর প্রতিপক্ষকে সামলাতে দ্বিতীয়ার্ধে এই ফর্মুলায় গিয়েছিলেন জেমি। প্রস্তুতি ম্যাচেও তা পরখ করে নেওয়ায় ধরেই নেওয়া হচ্ছে কাতারেও প্রতিপক্ষকে আগে থামানোর পরিকল্পনা নিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ।

এদিকে দেশেই করোনা পজিটিভ হওয়ায় দলের সঙ্গে যেতে পারেননি মাহবুবুর রহমান ও মোহাম্মদ ইব্রাহিম, চোটে ছিটকে যান সাদ উদ্দিন।