কাজের চাপে অবসাদে জাপানের প্রধানমন্ত্রী, ভর্তি হলেন হাসপাতালে

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতি সামাল দিতে অতিরিক্ত কাজের চাপে অবসাদে ভোগছিলেন তিনি। অবশেষে সোমবার সকালে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। দেশটির পদস্থ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এই খবর দিয়েছে ।

 

৬৬ বছর বয়সী আবের কি ধরণের অসুস্থতা সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। তবে দেশটির নির্ভরযোগ্য সংবাদ সংস্থা কায়োদো নিউজ প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্টদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, এটা আবের নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা।

সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে নিপ্পন টিভি জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যের অবস্থা গুরুতর নয়। অতিরিক্ত কাজের চাপে অবসাদগ্রস্ত হয়ে উঠেছিলেন আবে। তাই স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কায়োদোর নিউজের খবরে বলা হয়েছে, বছরে নিয়মিত দু’বার আবের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। সম্প্রতি সময়ে তার সবশেষ মেডিকেল চেকআপ করা হয়েছিল ১৩ জুন। এবারেরটা সেই চেকআপের ফলোআপ।

তবে এ ব্যাপারে জাপান প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

খবরে বলা হয়েছে, টোকিওর কেইও বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে জাপানের সবচেয়ে লম্বা সময়ের প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা শুরু হয়।

গত সপ্তাহে জাপানের লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির টেক্স প্যানেলের চেয়ারম্যান আকিরা আমারি জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় অত্যধিক কাজের চাপে অবসাদে ভুগতে পারেন প্রধানমন্ত্রী আবে।

তিনি বলেন, আমি তাকে বিরতি দিতে চাই। দায়িত্ব পালন নিয়ে তার অসাধারণ অনুভূতি রয়েছে। তিনি মনে করেন কাজ থেকে বিরতি নেয়াটা ভুল।

 

২০১২ সাল থেকে জাপানের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা আবের আলসারের সমস্যা রয়েছে। যথাযথ চিকিৎসার মাধ্যমে অসুখটি নিয়ন্ত্রণে রাখছেন তিনি।

জাপানের সংবাদমাধ্যমগুলোতে চলতি মাসে প্রধানমন্ত্রীর আবের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বেশ কিছু খবর প্রকাশিত হয়েছে। সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন ফ্ল্যাশে বলা হয়েছিল, গত ৬ জুন অফিস করার সময় রক্তবমি করেছেন তিনি। তবে এই খবরের সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

সূত্র: রয়টার্স