করোনায় আক্রান্ত হয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতির মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহে….রাজেউন)। সোমবার বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন ১৯ জুন থেকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা কোর্টপাড়ার বাসিন্দা ছিলেন। আলমগীর হোসেনের পৈত্রিক বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলার বড় দুধপাতিলা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত আতাউর বিশ্বাসের ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির বর্তমান সভাপতি। এছাড়া তিনি নিরাপদ সড়ক চাই এবং জেলা লোকমোর্চার সভাপতি ছিলেন। গত ১১ জুন অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন ঠাণ্ডা জ্বরে আক্রান্ত হন। পরদিন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে নমুনা দেন তিনি। এর পরের দিন তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

ওইদিনই তিনি চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। এর কয়েকদিন পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। সোমবার বেলা সাড়ে ৩টায় স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান চুয়াডাঙ্গার সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট হানিফ উদ্দিন।

তিনি জানান, অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন দুই কন্যা ও এক পুত্রের জনক ছিলেন। স্ত্রী নিলুফা বানু দামুড়হুদার ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।