করোনাভাইরাস দেশের প্রথম এবং প্রধান ইস্যু

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার হচ্ছে দেশের প্রথম এবং প্রধান সমস্যা। তিনি আজ (বুধবার) টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বার্তায় দেশের জনগণের উদ্দেশ্যে একথা বলেন।

করোনা মহামারীর ব্যাপারে গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন এবং সংশ্লিষ্টদের দায়িত্ব পরিপূর্ণভাবে পালনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে সর্বোচ্চ নেতা দেশের কর্মকর্তা এবং জনগণের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ এখন দেশের এক নম্বর সমস্যা। এটি শুধু আমাদের নয় বরং সারা বিশ্বের প্রায় সবখানেই এই সমস্যা ছড়িয়ে পড়েছে। করোনাভাইরাসের মহামারীতে বহু মানুষের আক্রান্ত হওয়া এবং মৃত্যুবরণ সত্যিই মর্মান্তিক। এটি মানুষের হৃদয়কে ভেঙে দিয়েছে।“

উজমা খামেনেয়ী বলেন, “আজকে করোনাভাইরাসের মহামারী প্রতিরোধে যে সমস্ত স্বাস্থ্যকর্মী কাজ করছেন তারা চরম পরিশ্রান্ত। এই গ্রীষ্মকালে তারা চলমান সংকট নিয়ে রাতদিন শারীরিক ও মানসিকভাবে কাজ করছেন। আমাদের ধন্যবাদ তাদের জন্য কোনো ব্যাপার না। সত্যিকারের ধন্যবাদ আসবে আল্লাহর কাছ থেকে যিনি তাদের সমস্ত প্রচেষ্টা দেখছেন।

সর্বোচ্চ নেতা দেশের জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে উচ্চমাত্রার সর্তকতা অবলম্বনের আহ্বান জানান যাতে নিজেদের এবং অন্যের জীবন বিপন্ন না হয়।

সর্বোচ্চ নেতা গুরুত্ব দিয়ে বলেন, “করোনাভাইরাস মোকাবেলার ক্ষেত্রে যারা সম্মুখভাগে থেকে লড়াই করছেন সেইসব স্বাস্থ্যকর্মীর জন্য কিছু বিশ্রাম দরকার। যদি দেশের মানুষ কয়েক মাস পরিপূর্ণভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন তাহলে এটি সম্ভব হবে। ততক্ষণ পর্যন্ত দেশের সবার জন্য করোনাভাইরাসের টিকা নিশ্চিত করতে হবে। এতে যদি করোনাভাইরাস চলে নাও যায় তবে মৃত্যুর হার অনেক কমে আসবে। পবিত্র মহররম মাসের অনুষ্ঠানাদিতে অংশগ্রহণকারীরা যাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন সে ব্যাপারে তিনি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

সূত্রঃ পার্সটুডে