ওসি প্রদীপের নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা ১১ মাস পর কারামুক্ত

টেকনাফের বহিস্কৃত ওসি প্রদীপের নির্দেশে টেকনাফ থানায় দায়ের করা ৬ টি মামলার সবকটিতেই জামিন পেয়েছে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা আজ কারামুক্ত হয়েছেন ।

সর্বশেষ চাঁদাবাজির মামলায় সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফাকে আজ জামিন পেয় সন্ধ্যা ৬ টায় কক্সবাজার জেলা কারগার থেকে ১১ মাস কারাভোগ করে কারামুক্ত হয়েছেন।

আজ ২৭ আগষ্ট ২০ ইং তারিখ সকাল ১১.৩০ টায় কক্সবাজার জেলা যুগ্ম দায়রা জজ ১ম আদালত নির্যাতিত ফরিদুল মোস্তফাকে ছয় মামলার সর্বশেস মামলায় জামিন প্রদান করেন।

আদালত সুত্রে জানা গেছে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা টেকনাফের বহিষ্কার ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে মাদক নির্মূলের আড়ালে বিচারবহির্ভূত হত্যা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে বিভিন্ন সময় সংবাদ পরিবেশ করেছিলেন।

যার কারনে ওসি প্রদীপ সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফাকে ঢাকা থেকে ধরে এনে মাদক ও চাঁদাবাজির ৬ টি মিথ্যা মামলায় জড়িত করে ও শারীরিক নির্যাতন করে । ওই মামলায় ফরিদুল মোস্তফা গত ১১ মাস ধরে কারাভোগ করে আসছিল।

ইতিমধ্যে ৫টি মামলা থেকে সে জামিন লাভ করে। আজ চাঁদাবাজির শেষ মামলায়ও জামিন লাভ করে সে। ফলে আজ সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা বিকালেই জেল থেকে মুক্তি পাচ্ছেন বলে তার আইনজীবীরা জানিয়েছেন ।

প্রাপ্ত সুত্রে জানা যায় গত ৬ জুলাই ২০১৯ সালে বহিস্কৃত ওসি প্রদীপের নির্দেশে টেকনাফের হ্নীলার দরগাপাড়ার মৃত তাজর মল্লুককে বাদী করে টেকনাফ থানায় জিআর ৫৭৭/১৯ চাঁদাবাজির মামলাটি দায়ের করেন।

আসামী পক্ষে মামলার জামিন শুনানী করেন এড.মোঃআব্দুল মান্নান, এড.আবুল কালাম ছিদ্দিকী, এড.রেজাউল করিম রেজা ও এড.সাইফুদ্দিন খালেদ প্রমূখ।