এমপি পাপুলের পদ কেন শূন্য ঘোষণা হবে না: হাইকোর্ট

মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেফতার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শহীদ ইসলাম পাপুলের এমপি পদ কেন শূন্য ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

জনস্বার্থে করা একটি রিটের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেয়া ও জাল সার্টিফিকেট দাখিলের অভিযোগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-২ আসনে পাপুলের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল ফয়েজ ভুইয়া ১৬ আগস্ট হাইকার্টে এই রিট করেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন শেখ আওসাফুর রহমান।

পরে আইনজীবী আওসাফুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৮ সালের নির্বাচনে এমপি পাপুরের একজন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল ফয়েজ ভুইয়া। তিনি সব ধরনের কাগজপত্র ও তথ্য নিয়ে এসেছিলেন আমাদের কাছে। আমরা সব কাগজপত্র দেখে সন্তুষ্ট হয়ে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছিলাম। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ সবকিছু দেখে সন্তুষ্ট হয়ে তার (এমপি পাপুল) সংসদ সদস্যপদ কেন বাতিল করা হবে না, সেই মর্মে চার সপ্তাহের রুল জারি করেন।

এই আইনজীবী বলেন, আদালত আমাদের আরও নির্দেশনা দিয়েছেন, আমরা যেন দ্রুত মামলাটি রেডি করি। উনারা মামলাটি শুনবেন।

প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীপুরের এই এমপি কুয়েতের কারাগারে বন্দি। তার বিরুদ্ধে মানব পাচারের অভিযোগ রয়েছে। কুয়েতে তিনি ২১ দিন রিমান্ডে ছিলেন।