এত দ্রুত কাবুলে ঢোকার পরিকল্পনা ছিল না: তালেবান মুখপাত্র

এত দ্রুত কাবুলে ঢোকার কোনো পরিকল্পনা তালেবানের ছিল না বলে জানিয়েছেন দলটির সাংস্কৃতিক কমিশনের মুখপাত্র আবদুল কাহার বালখি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানান। গত সপ্তাহে কাবুল দখল করার পর এই প্রথম কোনো সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিলেন তিনি।

আবদুল কাহার বালখি বলেন, ‘প্রতিটি ঘটনা অনেক দ্রুত ঘটায় জনগণ অবাক হয়ে গেছে। এটা আমাদের পরিকল্পনার বাইরে ছিল। আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল প্রথমেই কাবুলে ঢুকবো না। সেখানে ঢোকার আগে রাজনৈতিক সমাধান চেয়েছিলাম। একটি যৌথ ও সব পক্ষের অংশগ্রহণে সরকার গঠনের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু সরকারি বাহিনী পালানোর কারণে জায়গাগুলো পরিত্যক্ত হয়ে গেলে বাধ্য হয়েই আমরা নিরাপত্তার দায়িত্ব নিই।

আফগানদের মধ্যে আলোচনার মূল একটি কারণ অধিকারের বিষয়গুলো নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছানো। তাছাড়া ইসলামি আইনের বিষয়টি সবারই জানা। নারী-পুরুষের অধিকারের বিষয়ে কোনো অস্পষ্টতা নেই। পুরুষ ও শিশুর অধিকার নিয়েও নির্দেশনা রয়েছে।

টার্গেট কিলিং এবং সরকারি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের নিপীড়ন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অন্যদের ওপর আইন প্রয়োগ করার আগে নিজেদের ওপর সেটা প্রয়োগ করতে চাই। যেন এটা সমাজের সবার জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকে। আমাদের মধ্যে কেউ নিপীড়ন ও হত্যায় জড়িত থাকলে তাকে প্রথম বিচারের মুখোমুখি আনা হবে।

তালেবান সস্ত্রাসী সংগঠন কিনা, এমন এক প্রশ্নের জবাবে এই নেতা বলেন, জনগণ আমাদের সন্ত্রাসী মনে করে বলে বিশ্বাস করি না। এটা কেবল যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া একটি শব্দ, যা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ।