এটি সাম্রাজ্যবাদী ও চরিত্রহীন আমেরিকার রীতিসিদ্ধ কাজ: সর্বোচ্চ নেতা

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী জাপানের হিরোশিমায় মার্কিন পরমাণু বোমা হামলায় এক লাখ মানুষের নিহত হওয়ার ঘটনাকে সাম্রাজ্যবাদী, ধর্মহীন ও চরিত্রহীন মার্কিন বাহিনীর স্বভাবসিদ্ধ কাজ বলে অভিহিত করেছেন।

তিনি হিরোশিমা নগরীতে মার্কিন পরমাণু অস্ত্র হামলার বার্ষিকীতে এক বার্তা প্রকাশ করে এ মন্তব্য করেন। সর্বোচ্চ নেতার বার্তাটি তাঁর দপ্তরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে (KHAMENEI.IR ) প্রকাশিত হয়েছে।

বার্তায় ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, আমেরিকা ১৯৪৫ সালের আগস্ট মাসে হিরোশিমা নগরীতে এটম বোমা মেরে তাৎক্ষণিকভাবে অন্তত এক লাখ মানুষকে হত্যা করে। এ ধরনের হত্যাকাণ্ড সাম্রাজ্যবাদী, ধর্মহীন ও চরিত্রহীন আমেরিকার সেনাবাহিনীর স্বভাবগত বৈশিষ্ট্য।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, কেউ যদি সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলোর অপরাধগুলো বর্ণনা করতে চায় তাহলে তা বলতে কয়েকটি বই রচনা করতে হবে।

১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হ্যারি ট্রুম্যানের নির্দেশে মার্কিন বাহিনী একটি বি-২৯ বোমারু বিমানে করে জাপানের হিরোশিমা নগরীর উপর পরমাণু অস্ত্র নিক্ষেপ করে। এর তিন দিন পর জাপানের নাগাসাকি শহরে একই ধরনের আরেকটি বোমাবর্ষণ করে ওয়াশিংটন। দু’টি বোমা হামলায় প্রায় দুই লাখ ২০ হাজার নিরপরাধ বেসামরিক মানুষ নিহত হয়।

বিশ্বের ইতিহাসে ওই দুইবারই কোনো যুদ্ধে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহৃত হয়েছে। আমেরিকা আজ পর্যন্ত মানবতা ও মানবাধিকার বিরোধী ওই হামলার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেনি।#