এখনো যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত নয় ভারতের রাফাল বিমান!

এশিয়ার পরাশক্তি চীনের সঙ্গে সীমান্তে চলমান উত্তেজনার মাঝে অত্যাধুনিক ফরাসি যুদ্ধবিমান রাফালের প্রথম চালান ভারতে পৌঁছেছে। বুধবার (২৯ জুলাই) ফ্রান্স থেকে পাঁচটি রাফাল বিমান সংযুক্ত আরব আমিরাত হয়ে ভারতে এসে পৌছায়।

২০১৬ সালে ভারত পুরনো রুশ মিগ যুদ্ধবিমান বাতিল করে দেশটির বিমানবাহিনীর আধুনিকায়নের জন্য ৩৬টি রাফাল বিমান কেনার জন্য ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি করে। যদিও বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে বলেছেন, এখনো লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত নয় ভারতের রাফাল যুদ্ধবিমান। কেননা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করতে যুদ্ধবিমানগুলোতে আরও কাজ করাতে হবে।

দেশটির বিমানবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল প্রণব কুমার বারবোরা বলেছেন, রাফাল পৌঁছানোকে স্বাগত জানানো হয়েছে। কারণ এসব বিমান দেশের বিমানবাহিনীর সক্ষমতা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করবে।

তিনি আরও বলেন, পুরোপুরি ব্যবহারের আগে কিছুটা সময়ের দরকার হবে। ভারতে লজিস্টিক চেইন স্থাপন এবং কারিগরি ও স্থল কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। নতুন কোনও এক স্কোয়াড্রনকে পুরোপুরি প্রস্তুত করার জন্য সাধারণত দুই বছরের মতো সময়ের দরকার হয়। একটি রাফাল স্কোয়াড্রন প্রস্তুত করতে কমপক্ষে ১৮টি যুদ্ধবিমান লাগবে।

ফ্রান্সের সঙ্গে যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তির পর এবারই প্রথম চালান হিসেবে পাঁচটি বিমান ভারতে পৌঁছেছে। বাকিগুলো আগামী বছরের মধ্যে সরবরাহ করা হতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

রাফাল যুদ্ধবিমান হামলার জন্য দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে স্থল ও সাগরে লক্ষ্যবস্তুতে নিখুঁতভাবে আঘাত করতে সক্ষম। এর প্রত্যেকটি বিমান কিনতে খরচ পড়েছে ৭০০ কোটি রুপি।

 

ফরাসি প্রতিষ্ঠান দাসল্ট অ্যাভিয়েশনের তৈরি এই যুদ্ধবিমান সোমবার ভারতের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে। পরে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে রাতে যাত্রাবিরতি করে বুধবার ভারতে এসে পৌঁছায়।

সূত্র : বিবিসি নিউজ