উত্তেজনা বাড়িয়ে সাইপ্রাসে ভয়ঙ্কর সামরিক মহড়া তুরস্কের

পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান নিয়ে গ্রিসের সঙ্গে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই সাইপ্রাসে দুই সপ্তাহব্যাপী সামরিক মহড়া চালানোর ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপের মুসলিম রাষ্ট্র তুরস্ক।

শুক্রবার (২৮ আগস্ট) দিবাগত রাতে তুর্কি নাবিকদের কাছে পাঠানো এক নির্দেশনায় আঙ্কারা জানিয়েছে, তারা আগামী ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উত্তর-পশ্চিম সাইপ্রাসে ‘বন্দুকের মহড়া’ করবে।

দুই ন্যাটো সদস্য তুরস্ক ও গ্রিসের মধ্যে সামুদ্রিক জলসীমা নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। সম্প্রতি তুরস্ক পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানকারী জাহাজ ‘ওরুক রেইস’ এবং এর সঙ্গে নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজের বহর পাঠালে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়।

উভয় পক্ষই পূর্ব ভূমধ্যসাগরে সামরিক মহড়া দিয়েছে। এতে তাদের মধ্যে বড় ধরনের বিরোধের সম্ভাবনা প্রবল হয়ে উঠেছে। দুই সপ্তাহ আগে তুরস্কের ওরুক রেইসকে সঙ্গ দেওয়া ফ্রিগেটের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে গ্রিক যুদ্ধজাহাজের।

তুর্কি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) তুরস্কের যুদ্ধবিমানগুলো তাদের কাজ চলা একটি এলাকায় গ্রিসের ছয়টি এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের প্রবেশ আটকে দিয়েছে।

শুক্রবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) এক শীর্ষ কূটনীতিক জানিয়েছেন, তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনেই এ বিষয়ে আলোচনা হতে পারে।

যদিও ইইউ’র এমন অবস্থানের কড়া সমালোচনা করেছেন তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওক্তায়। তিনি বলেছিলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের একদিকে সংলাপের আহ্বান জানানো, অন্যদিকে নিষেধাজ্ঞার পরিকল্পনা করা কপটতা ছাড়া কিছু নয়।

সূত্র : রয়টার্স