ইয়েমেনে সৌদি জোট বাহিনীর কমান্ডারকে বরখাস্ত করলেন বাদশাহ

দুর্নীতির দায়ে ইয়েমেনে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনীর কমান্ডার প্রিন্স ফাহাদ বিন তুর্কি বিন আবদুল আজিজকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

সৌদি বার্তা সংস্থা  জানায়, আল-জওফ অঞ্চলের উপকমান্ডারের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন প্রিন্স আবদুল আজিজ বিন ফাহাদ বিন তুর্কি। তাকে তার কর্তব্য থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে চার সামরিক কর্মকর্তার সঙ্গে রাজপরিবারের দুই সদস্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ এ সংক্রান্ত একটি ডিক্রি জারি করেছেন।

দুর্নীতি দমন সংস্থায় যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একটি চিঠির পর এমন সিদ্ধান্ত এসেছে। এতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে সন্দেহজনক লেনদেন দিয়ে একটি তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, সব সামরিক ও বেসামরিক লোকজনের বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করবে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ ও দমন কমিশন। এরপর তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

সৌদি আরবের প্রতিষ্ঠাতা বাদশাহ আবদুল আজিজ আল-সৌদের নাতি প্রিন্স ফাহাদ। ২০১৮ সাল থেকে ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

২০১৫ সালে হুতি বিদ্রোহীরা রাজধানী সানা দখলে নিলে রিয়াদ একটি সামরিক জোট গঠন করে।

২০১৭ সালে পূর্বসূরিকে ক্ষমতাচ্যুত করে সিংহাসনের উত্তরসূরি হওয়ার পর একটি দুর্নীতি দমন কমিশন গঠন করেন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

এরপর রাজপরিবারের বহু সদস্য, মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে রিয়াদের রিটজ-কার্লটন হোটেলে আটক করে রাখেন তিনি। পরবর্তীতে গোপন চুক্তির পর অনেককে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।