ইহুদিবাদী ইসরাইলের পতন একটি বাস্তবতা, খুব শিগগিরই তা বাস্তবায়ন হবে

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজি’র কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের পতন একটি বাস্তবতা এবং খুব শিগগিরই তা বাস্তবায়ন হবে। তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, ইসরাইলের পতন শুধুমাত্র কোনো আকাঙ্ক্ষা নয়।

গতকাল (সোমবার) ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া ও জিহাদ আন্দোলনের মহাসচিব জিয়াদ আল-নাখালার সঙ্গে রাজধানী তেহরানে আলাদা বৈঠকে এ মন্তব্য করেন।

ফিলিস্তিনি নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে জেনারেল হোসেইন সালামি ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক যুদ্ধে বিজয় অর্জনের জন্য তাদেরকে অভিনন্দন জানান। জেনারেল সালামি বলেন, “ইহুদিবাদী ইসরাইলের পতন একটি বাস্তবতা এটি কোন আকাঙ্ক্ষা নয় এবং শিগগিরই তা বাস্তবায়ন হবে।

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের আগে যেসব যুদ্ধ হয়েছে তার সঙ্গে গত মে মাসের যুদ্ধের তুলনা করে বলেন, এ যুদ্ধ সম্পূর্ণ ভিন্ন ছিল এবং ক্ষমতার ভারসাম্য বদলে গেছে। ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা অত্যন্ত শক্তিশালী অবস্থানে ছিলেন এবং তারা সামরিক বিজয় অর্জন করেছেন।

জেনারেল সালামি আরো বলেন, একমাত্র শক্তিই অনমনীয় ইহুদিবাদী ইসরাইলকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। তিনি জোর দিয়ে বলেন, এ জন্যই ফিলিস্তিনিদের শক্তিশালী করার কৌশল নেয়া হয়েছে যা কখনোই থামবে না।

বৈঠকে হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া ফিলিস্তিনিদের প্রতি ইরানের পক্ষ থেকে চূড়ান্ত সমর্থন দেয়ার জন্য তেহরানের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, ‘অপারেশন আল-কুদস সোর্ড’ এর মধ্যদিয়ে ইহুদিবাদী ইসরাইল যে পরাজয় বরণ করেছে তাতে তারা এখন দুঃস্বপ্নের মধ্যে রয়েছে। পাশাপাশি ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন এখন ক্ষমতার শীর্ষে অবস্থান করছে এবং অতীতের অভিজ্ঞতাগুলো কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে সফলতা ধারা অব্যাহত রাখতে চায়।

আইআরসিসি প্রধানের সঙ্গে বৈঠকের জিহাদ আন্দোলনের নেতা জিয়াদ আল-নাখালা বলেন, ইরান এবং বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি হচ্ছে মুসলিম বিশ্বের ঢাল স্বরূপ। মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে যে সমস্ত প্রতিরোধ সংগঠন রয়েছে তাদেরও ঢাল হিসেবে কাজ করছে ইরান।

সূত্রঃ পার্সটুডে