ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ১২ বছরের শাসনের অবসান হয়েছে। রোববার (১৩ জুন) নাফতালি বেনেটের নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারের অনুমোদন দিয়েছে দেশটির পার্লামেন্ট।

এখন বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ৭১ বছর বয়সী নেতানিয়াহু। তার প্রজন্মের সবচেয়ে প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয় তাকে। তবে দ্রুতই ক্ষমতায় আসার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন কট্টরপন্থী এই নেতা।

ব্যাপক হৈ হট্টগোলের মধ্যেই ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটের অধিবেশনে ডানপন্থী ও অতি কট্টরপন্থী সমর্থকেরা ‘লজ্জা, লজ্জা’ বলে চিকিৎকার করতে থাকেন। তারা নাফতালি বেনেটকে মিথ্যাবাদী বলে আখ্যায়িত করেন। মাত্র একটি আসনে তার জোট পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

ইসরায়েলের ১২০ আসনের পার্লামেন্টে নেতানিয়াহুর পক্ষে ৫৯ ভোট পড়ে। আর নতুন জোট সরকার গড়ার পক্ষে ভোট পড়েছে ৬০টি। রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ইতিমধ্যে জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন নাফতালি বেনেট।

স্থানীয় সময় রোববার বিকেল ৪টায় নেসেটের অধিবেশন শুরু হওয়ার পর নেতানিয়াহুর পাশাপাশি বিরোধী জোটের দুই নেতা নাফতালি বেনেট ও ইয়ার লাপিড বক্তব্য দেন। এরপর ভোটে বিরোধী জোটের পক্ষে রায় আসে। এখন নতুন সরকার গঠনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে তারা।