ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে তরুণী নিহত, প্রতিবাদের ঝড়

ইসরাইলি সেনাবহিনীর আক্রমণে নিহত হন জেরুজালেমের দালিয়া সামুদি নামের এক স্তন্যদায়ী তরুণী।

গতকাল শুক্রবার (৭ আগস্ট) সকালে ফিলিস্তেনের পশ্চিম সীমান্তের জানিন অঞ্চলের জাবারিয়াত এলাকায় ইসরাইলি দখলদার বাহিনীর আক্রমণে সামুদি মারাত্মক আহত হন। হাসাপাতালে নিয়ে ক্ষতস্থানে সার্জারির করার সময় মৃত্যু বরণ করেন তিনি।

রাতের শেষ ভাগে দুগ্ধপোষ্য শিশুকে দুধ করাতে জেগে উঠেন দালিয়া। এমন সময় ঘরের কাছেই জানিন নগরে ইসরাইলি বাহিনীর গুলি বর্ষণ শুরু হয়।

এরই মধ্যে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ শুরু হলে দালিয়া শিশু সন্তানকে নিয়ে জানালা বন্ধ করতে যান। আর তখনি গুলি এসে বিদ্ধ হয় তাঁর বুকে। এমনকি তাঁকে বহন করা অ্যাম্বুলেন্সেও গুলি নিক্ষেপ করা হয়।

দালিয়া সামুদির এমন হৃদয়বিদারক মৃত্যুতে ফিলিস্তেনের রামাল্লা নগরে প্রতিবাদ মিছিল হয়। ইসলরাইলের আগ্রাসনের প্রতিবাদে সোস্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় ব্যাপক প্রতিবাদ। ফিলিস্তিনের পতাকা দিয়ে ঢাকা তাঁর মৃতদেহ দেখতে এসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন সবাই।

ফিলিস্তেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, তরুণীকে সার্জারি করতে আইসিইউতে নেওয়া হয়। কিন্তু ক্ষতের পরিমাণ বেশি হওয়ায় তখনি মৃত্যু বরণ করেন।

গতকাল জুমার নামাজের পর ফিলিস্তিনে ইসরাইলের জমি দখল ও পশ্চিম তীরে সীমানা বৃ্দ্ধির প্রতিবাদে বিশাল প্রতিবাদ মিছিল হয়। এ সময় ইসরাইলি বাহিনী ও আন্দোলনকারীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়।

সূত্র : আল জাজিরা নেট