ইসরাইলি অবৈধ বসতকারীও যুদ্ধাপরাধ করছে: জাতিসংঘ

জেরুজালেম ও পশ্চিমতীরে অবৈধ ইহুদি বসতকারীরা ফিলিস্তিনিদের নির্যাতন করে তাদের ঘরবাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে তা দখলের মাধ্যমে যুদ্ধাপরাধ করছে।জাতিসংঘের মানবাধিকার তদন্তকারী একটি দল এ মন্তব্য করেছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে দেয়া ভাষণে শুক্রবার অধিকৃত ফিলিস্তিনে নিয়োজিত জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক বিশেষ কর্মকর্তা মাইকেল লিন্ক এ কথা বলেন।খবর আরব নিউজের।

এতে জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক এ কর্মকর্তা আরও বলেন, তাকে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ তদন্ত কাজে কোনো প্রকার সহযোগিতা তো করেইনি; বরং তাকে বয়কট করে জাতিসংঘকে অপমান করেছে।

মাইকেল লিন্ক বলেন, ইসরাইলি বাহিনীর সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের ঘরবাড়ি দখলে অংশ নিয়ে একই ধরনের যুদ্ধাপরাধ করেছে অবৈধ ইহুদি বসতকারীরা।

তিনি আরও বলেন, নিরপরাধ ফিলিস্তিনিদের ওপর বর্বর নির্যাতন এবং তাদের বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ করে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) সজ্ঞা অনুসারে যুদ্ধাপরাধ করেছে।

তিনি আরও বলেন, তার তদন্ত রিপোর্ট এবং ইসরাইলের অবৈধ দখলদারিত্বের বিষয়টি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সামনে তুলে ধরবেন। পৃথক এক বিবৃতিতে লিন্ক আরও বলেন, দখলদার ইসরাইল গত ৫৪ বছর ধরে ফিলিস্তিনিদের ওপর এ ধরণের যুদ্ধাপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় তারা পূর্ব জেরুজালেম ও পশ্চিমতীরে ফিলিস্তিনিদের ঘরবাড়ি দখল করে ৩০০ অবৈধ বসতি নির্মাণ করেছে, যাতে ৬ লাখ ৮০ হাজার ইহুদি বসবাস করছে। ইসরাইল কাঠামোগত যুদ্ধাপরাধ করে ফিলিস্তিনিদের একের পর এক ভূমি দখল করে যাচ্ছে।