ইরানের পরমাণু আলোচনায় মীমাংসার অযোগ্য কোনো বিষয় নেই: রাশিয়া

রাশিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রধান পরমাণু আলোচক সের্গেই রিয়াবকভ বলেছেন, ভিয়েনায় ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের লক্ষ্যে যে ধারাবাহিক সংলাপ চলছে তাকে মীমাংসার অযোগ্য কোনো বিষয় নেই।

ভিয়েনা আলোচনার চূড়ান্ত সমঝোতার দলিল লেখার কাজ শিগগিরই শুরু হবে জানিয়ে রিয়াবকভ বুধবার মস্কোয় বলেছেন, এই প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে রাশিয়া।

এদিকে ভিয়েনা থেকে পাওয়া খবরে জানা গেছে, সেখানে পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরবর্তী দফা আলোচনা আগামী সপ্তাহে শুরু হবে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত জল্পনা থেকে জানা যাচ্ছে, এবারের আলোচনায় পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবন ও ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ব্যাপারে সবগুলো পক্ষ চূড়ান্ত সমঝোতায় পৌঁছাবে।

২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে আবার আগের অবস্থায় সক্রিয় করার জন্য অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় গত দু’মাস ধরে ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে ইরানের সংলাপ চলছে।

‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগের নীতি অনুসরণ করে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালের মে মাসে পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নেন। এরপর এক বছর পর্যন্ত ইরান এই সমঝোতা বাস্তবায়নে সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিল কিন্তু অন্য পক্ষগুলো সমঝোতা বাস্তবায়ন না করায় ৩৬ অনুচ্ছেদ অনুসারে ইরান সমঝোতার বেশকিছু ধারা বাস্তবায়ন স্থগিত করে দেয়।

বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার দেশকে এই সমঝোতায় ফিরিয়ে আনার আগ্রহ প্রকাশ করলেও তিনি ইরানকে আগে তার প্রতিশ্রুতিতে পুরোপুরি ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন। কিন্তু ইরান বলেছে, আমেরিকা আগে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে বলে তাকে আগে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে এতে ফিরে আসতে হবে। ইরান ও আমেরিকার মধ্যকার মতপার্থক্যের এই জায়গাটি নিয়ে মূলত ভিয়েনায় ধারাবাহিক সংলাপ চলছে।

সূএঃ পার্সটুডে