ইরানি বিজ্ঞানীর হত্যাকাণ্ডকে ‘অপরাধমূলক তৎপরতা’ বললেন বোরেল

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা জোসেপ বোরেল ইরানের শীর্ষস্থানীয় পরমাণু ও প্রতিরক্ষা শিল্প বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদে’র হত্যাকাণ্ডকে ‘অপরাধমূলক তৎপরতা’ বলে মন্তব্য করেছেন।

তিনি গতকাল (মঙ্গলবার) ব্রাসেলসে এক বক্তব্যে ইরানি বিজ্ঞানীর হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানান; তবে এ হামলার পেছনে কারা জড়িত সে সম্পর্কে তিনি কোনো ইঙ্গিত করেননি।

গত শুক্রবার ইরানের রাজধানী তেহরানের অদূরে দামাভান্দ এলাকার অবসার্দ শহরের একটি সড়কে মোহসেন ফাখরিজাদে’কে গুলি করে হত্যা করে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই পাশবিক হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দার ঝড় ওঠে। রাশিয়া, তুরস্ক, কাতার, সিরিয়া, ভেনিজুয়েলা ও দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আরো বহু দেশ এবং জাতিসংঘের মতো আন্তর্জাতিক সংস্থা এ হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছে।

ইরানের বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গবেষণা ও উদ্ভাবন বিষয়ক সংস্থার চেয়ারম্যান মোহসেন ফাখরিজাদে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় এক সন্ত্রাসী হামলায় শহীদ হন। তেহরানের অদূরে দামাভান্দ কাউন্টির আবসার্দ শহরের একটি সড়কে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফাখরিজাদে’কে বহনকারী গাড়িতে হামলা চালায়।

একজন পদস্থ মার্কিন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, এই হত্যাকাণ্ডে ইহুদিবাদী ইসরাইলের হাত থাকার ব্যাপারে কোনো সংশয় নেই।

কয়েক বছর আগে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরির প্রচেষ্টার দায়ে অভিযুক্ত করতে গিয়ে দাবি করেছিলেন, মোহসেন ফাখরিজাদে তার ভাষায় ইরানের ‘পরমাণু অস্ত্র তৈরির জনক।’ তিনি বলেন, “নামটি মনে রাখবেন। মোহসেন ফাখরিজাদে।