ইরাকে সন্ত্রাস বিরোধী লড়াইয়ে হাশদ আশ-শাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন ঘোষণা করলো আইআরজিসি

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ডবাহিনী বা আইআরজিসি’র প্রধান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন, ইরাকে বিদেশী দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তার দেশের বাহিনী সবসময় জনপ্রিয় প্রতিরোধকামী সংগঠন হাশদ আশ শাবির পাশে রয়েছে।

গতকাল (রোববার) হাশদ আশ-শাবির প্রধান ফালিহ আল ফায়াদের সঙ্গে বৈঠকে জেনারেল সালামি উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইরাকি জাতির বিজয়ে কৌশলগত ভূমিকা পালন করার পাশাপাশি ইরাকে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষার কাজে লিপ্ত থাকায় প্রতিরোধকামী সংগঠনটির ভূঁয়সী প্রশংসা করেন।

আইআরজিসির প্রধান আরো বলেন, মাঠে ময়দানে শক্তিই সত্যিকারের রাজনৈতিক শক্তি। হাশদ আশ-শাবি এ ক্ষেত্রে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।আল্লাহর ইচ্ছায় মহান আদর্শ, দৃঢ় বিশ্বাস, অভ্যন্তরীণ ঐক্য এবং উন্নত শৃঙ্খলার উপর ভিত্তি করে হাশদ আশ শাবি একটি শক্তিশালী প্রতিরক্ষা বাহিনী হিসেবে নিজেদের আরো সম্প্রসারণ ঘটাতে সক্ষম হবে।

সালামি ইরাকি জনগণ এবং হাশদ আশ-শাবির মধ্যে অটুট ঐক্য এবং সম্পর্ককে সফলতার প্রধান কারণ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। তিনি বলেন, আপনাদেরকে এবং আমাদের সকলকে সর্বদাই সতর্ক থাকতে হবে যে শত্রুদের মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধে সাধারণ জনগণ যেনো ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

তিনি বলেন, আরেকটি বিষয় যেটি উল্লেখ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ তা হলো ইরাকে আমেরিকার ক্ষমতা এবং প্রভাব হ্রাস পাওয়ার প্রবণতা। এর অর্থ হচ্ছে ইরাকে প্রতিরোধকামী সংগঠন গঠিত হওয়ায় সেখানে মার্কিনীরা দুর্বল হয়ে পড়েছে এবং তারা এখন বিধ্বস্ত অবস্থায় আছে। এখন তাদের সামনে দু’টি পথ খোলা রয়েছে; সেখানে থাকা এবং ধ্বংসযজ্ঞ চালানো অথবা সেখান থেকে ত্যাগ করা এবং পরাজয় মেনে নেয়া।

জেনারেল সালামি বলেন, আইআরজিসি এবং হাশদ আশ-শাবির মধ্যে সম্পর্ক পবিত্র ইসলাম ধর্মের ভিত্তিতে গড়ে উঠেছে। এখানে আঞ্চলিক সীমানাকে মোটেও বিবেচনায় নেয়া হয় নি। তিনি বলেন, আমরা আপনাদের প্রতিরোধকামীতার সমর্থক এবং আপনাদের এ অব্যাহত লড়াইয়ে আমরা আপনাদের পাশে আছি।

সূত্রঃ পার্সটুডে