ইরাকে মার্কিন দূতাবাসে ফের ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাত

ইরাকের রাজধানী বাগদাদের গ্রিনজোনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে আবারও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বাগদাদের গ্রিনজোনে চারটি কাতিউশা রকেট আঘাত হানে যার একটি মার্কিন দূতাবাসের প্রাঙ্গণে পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক মিশনের ওই এলাকায় পরবর্তীকালে মার্কিন সেনাদের মোতায়েন করা হয়েছে।

ইরাকের সামরিক বাহিনী বিবৃতির মাধ্যমে কাতিউশা রকেট হামলার কথা নিশ্চিত করেছে। যদিও এতে কোনো ধরনের হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটেনি বলে জানানো হয়।

মার্কিন দূতাবাসের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য আমেরিকা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েন করে রেখেছে কিন্তু এসব রকেট প্রতিহত করতে সে ব্যবস্থা ব্যর্থ হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে কোনো ব্যক্তি বা সংগঠন রকেট হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি।

 

এর আগে শনিবার (১৫ আগস্ট) দিবাগত রাতে দুটি কাতিউশা রকেট দিয়ে বাগদাদের উত্তরাঞ্চলীয় তাজি নামক মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্রের হামলা হয়েছিল।

 

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা বলেছে, ভয়াবহ এই হামলায় কোনো ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহত হয়নি বলে জানিয়েছে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট।

রবিবার (১৬ আগস্ট) সকালে এক টুইট বার্তায় হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের মুখপাত্র কর্নেল মাইলস বি ক্যাগিনস।

 

তিনি বলেছিলেন, শনিবার স্থানীয় সময় রাত ৯টা ১৫ মিনিটে তাজি ঘাটির দিকে দুটি ছোট রকেট দিয়ে হামলা চালানো হয়। এ সময় সেনাদের নিরাপদে ঘাটির ব্যাংকারের মধ্যে নিয়ে যাওয়া হয়। তাই আমাদের তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

 

তাছাড়া গত ৫ জুলাই বাগদাদের গ্রিনজোন এলাকায় সর্বশেষ রকেট হামলা হয়েছিল। এ এলাকায় ইরাক সরকারের বহু গুরুত্বপূর্ণ ভবন এবং বিদেশি কূটনীতিক মিশন রয়েছে।

সূত্র:রয়টার্স