ইরসাইল-আমিরাত সম্পর্কের বিরুদ্ধে তিউনিশিয়ায় বিক্ষোভ; রাষ্ট্রদূত বহিষ্কারের দাবি

দখলদার ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চুক্তির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে তিউনিশিয়ার জনগণ। এ সময় তারা তারা ইহুদিবাদী ইসরাইলের পতাকা ও আবু ধাবির যুবরাজের ছবিতে আগুন দেয়।

জানিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে তিউনিশিয়ার রাজধানী তিউনিসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দূতাবাসের সামনে প্রতিবাদীরা এক বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

এই সমাবেশে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সেদেশের সুশীল সমাজ এবং বিভিন্ন দল ও সংগঠনের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন। বিক্ষোভকারীরা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের দায়ে অবিলম্বে আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন। তাদের অনেকের হাতেই ছিল ফিলস্তিনের পতাকা। কারো কারো হাতে প্ল্যাকার্ড শোভা পাচ্ছিল।

এসব প্ল্যাকার্ডে যেসব স্লোগান লেখা ছিল তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- ‘ফিলিস্তিন বিক্রয়যোগ্য নয়’ এবং ‘আবু ধাবির যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন জায়েদ ডলারের বিনিময়ে বায়তুল মুকাদ্দাসকে বিক্রি করে দিয়েছেন’। এছাড়া অনেকে মুহাম্মাদ বিন জায়েদের এমন ছবি বহন করছিলেন যাতে ক্রস চিহ্ন আঁকা ছিল এবং উপরে লেখা ছিল ‘বিশ্বাসঘাতক’।

তিউনিশিয়ার অন্যতম প্রভাবশালী দল আন-নেহদা এক বিবৃতিতে আরব আমিরাতের পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়ে বলেছে, আন-নেহদা এই পদক্ষেপের বিরোধী এবং ‌আরব আমিরাত এই পদক্ষেপের মাধ্যমে গোটা মুসলিম বিশ্বকে উসকানি দিয়েছে।