আ.লীগ নেতার নেতৃত্বেই ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড: ফখরুল

১৫ আগস্টের খুনিদের আদালতের মাধ্যমে চিহ্নিত করার পরও কৌশলে প্রয়াত জিয়াউর রহমানকে জড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বঙ্গবন্ধুকে কারা হত্যা করেছে এরইমধ্যে আদালতে নির্ধারণ করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডে কোথাও জিয়াউর রহমানকে দোষারোপ করার মতো কিছুই পাওয়া যায়নি।

১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল আওয়ামী লীগের নেতা মোশতাকের নেতৃত্বে। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মাজেদের ঘাড়ে বন্দুক রেখে ঐতিহাসিক সত্যকে মিথ্যা করা যাবে না। চলমান অপতৎপরতায় প্রমাণিত হয় ক্ষমতাসীন মহল জাতিকে বিভক্ত করে সংকীর্ণ স্বার্থ অন্বেষণেই ব্যস্ত।

এসময় তিনি আরো বলেন, দেশের আইন আদালতকে উপেক্ষা ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মাজেদের ধারণকৃত ভিডিও উদ্দেশ্যমূলক, এটি অপরাজনীতি ছাড়া কিছু নয়। ফখরুল আরো বলেন, জিয়াউর রহমানকে খাটো করতে ইতিহাস বিকৃত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে সরকার।