আশ্রয়ণের ঘরের দরজা-জানালায় হাতুড়ি-শাবলের চিহ্ন পেয়েছি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের গৃহহীন মানুষদের জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৩০০টি স্থানের ঘরের দরজা-জানালায় হাতুড়ি-শাবলের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ফ্লোরগুলো খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে ভাঙা। সেসব ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি ঘরের ছবি তার হাতে এসেছে। প্রশ্ন উঠবে জানলে ছবিটা নিয়ে আসতাম। আগামীতে ছবি দেখাব।

আজ বৃহস্পতিবার একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এই কাজগুলো কারা করেছে তা তদন্তে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি দুর্নীতি দমন কমিশনকে বলব, ৩০০ ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, প্রত্যেকটার তদন্ত তাদের করতে হবে। তাদের রিপোর্ট দিতে হবে। এটাই আমার কথা।

তিনি বলেন, অবশ্যই এখানে দুর্নীতি করলে আমি সেই দুর্নীতি মানতে রাজি নই। গরিবকে ঘর করে দেব, সেখান থেকেও টাকা মেরে খাবে? তদন্ত করে দেখতে হবে, যারা ভাঙল তারা কারা? তাদের উদ্দেশ্যটা কী ছিল? তারা কেন ভাঙল? দুর্নীতি দমন কমিশন যদি তদন্ত করে থাকে, করতেই হবে।

তিনি বলেন, তদন্তে ৯টি জায়গায় আমরা দুর্নীতি পেয়েছি। ১০/১২ জায়গায় যেখানে অতিবৃষ্টি হলো, সেখানে বৃষ্টির কারণে মাটি ধসে ঘর পড়ে গেছে। সেখানে কিন্তু আরো অনেক ঘর ছিল।

তবে ৩০০টি স্থানে পরিস্থিতি ভিন্ন ছিল বলে প্রধানমন্ত্রী সংসদকে জানান, আর ৩০০টি জায়গায়, যেখানে প্রত্যেকটি ঘরের ছবি আমার কাছে আছে, পুরো তদন্ত করে দেখা গেছে সেখানে দরজা-জানালার ওপর হাতুড়ির আঘাত।

আশ্রয়ণের ঘর যেন আর ভাঙতে না পারে সে জন্য আরো মজবুত করে ঘর নির্মাণের কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমরা ঠিক করেছি। এখন কংক্রিটের পিলার এবং স্টিলের ফ্রেম দিয়ে ঘর করে দেব, যাদে চট করে ভেঙে ফেলতে না পারে।