আরমান কোহলির বাড়ি থেকে মাদক উদ্ধার

শনিবার ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো বা এনসিবি অভিনেতা আরমান কোহলির মুম্বইয়ের জুহুর বাড়িতে তল্লাশি চালায়৷ এরপর নিষিদ্ধ মাদক মজুত করে রাখার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় অভিনেতা এবং প্রাক্তন এই বিগ বস প্রতিযোগীকে৷

তবে এটা প্রথম ঘটনা নয়৷ এর আগেও বেআইনি কাজে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি৷ ২০১৮ সালেও গ্রেফতার হয়েছিলেন আরমান ৷ সে বার তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছিল ৪১ টি স্কচ হুইস্কির বোতল৷ যা ছিল আইনবিরুদ্ধ৷

বান্ধবী নীরু রন্ধওয়াকে শারীরিক ভাবে হেনস্থা করার অভিযোগেও অভিযুক্ত হন আরমান ৷ ফ্যাশন ডিজাইনার নীরুর সঙ্গে আরমানের প্রেমঘটিত সম্পর্ক ছিল ২০১৫ থেকে ২০১৮ অবধি৷ পরে অবশ্য আরমানের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ তুলে নিয়েছিলেন নীরু ৷ ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ ছবিতে নীরু ছিলেন আরমানের স্টাইলিস্ট৷

আরমানের পাশাপাশি শনিবার মাদককাণ্ডে এনসিবি গ্রেফতার করে টেলিভিশন অভিনেতা গৌরব দীক্ষিতকেও ৷ গত কয়েক মাস ধরে তার খোঁজে তল্লাশি চলছিল৷

এর আগে এপ্রিল মাসে অভিনেতা আজাজ খান এবং আরও কয়েক জনকে মাদককাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ৷ তাদের জেরাতেই গৌরবের নাম উঠে আসে৷ সংবাদ সংস্থার খবর, গ্রেফতারের পর অভিনেতাকে এনসিবি কাস্টডিতে পাঠানো হয়েছে ৩০ অগাস্ট অবধি৷