আমিরাত-ইসরাইল চুক্তি ফিলিস্তিনিদের পিঠে বিশ্বাসঘাতকতার ছুরি: হামাস নেতা

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের রাজনৈতিক শাখার নেতা ইসমাইল হানিয়া সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইহুদিবাদী ইসরাইলের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চুক্তিকে ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য বিশ্বাসঘাতকতার ছুরি হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

তুরস্কের আরবি ভাষার টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে ইসমাইল হানিয়া এ মন্তব্য করেন। সাক্ষাৎকার তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের কর্তৃপক্ষকে তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের আহবান জানান।

হানিয়া বলেন, তিনটি অলীক কল্পনা আরব নেতাদেরকে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক কারণে উদ্বুদ্ধ করেছে। প্রথম অলীক কল্পনা হচ্ছে তারা মনে করেছেন মুসলমানেরা পরাজিত জাতি এবং ইসরাইলকে তারা বিজয়ী শক্তি হিসেবে দেখছেন। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে- মুসলিম জাতি পরাজিত হতে পারে না এবং ফিলিস্তিনিরা দখল হয়ে যাওয়া ভূমি পুনরুদ্ধারের আগ পর্যন্ত তাদের সংগ্রাম থামাবে না

হামাস নেতা বলেন, দ্বিতীয় অলীক কল্পনা হচ্ছে কিছু শাসক জানেন যে, নিজের জনগণের সমর্থন ছাড়া বিদেশি সমর্থনের মাধ্যমে তাদের রাজনৈতিক বৈধতা অর্জিত হয়েছে এবং ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করেই শুধুমাত্র আমেরিকার সমর্থন লাভ করা সম্ভব।

এবং তৃতীয় আলিফ কল্পনা হচ্ছে- অনেকে বিশ্বাস করে ইসরাইল শান্তি এবং সহবস্থানের চেষ্টা করছে কিন্তু এটাই বাস্তবতা যে, ইসরাইল হচ্ছে দখলদার শক্তি যারা মধ্যপ্রাচ্যে বর্বরতা এবং সহিংসতা প্রতিষ্ঠা করেছে।

যে সব দেশ ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের প্রস্তাব নাকচ করেছে হামাসের এ নেতা তাদের প্রশংসা করেন। হানিয়া বলেন, তেল আবিবের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হলে ফিলিস্তিনি জনগণ এবং সব রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের মধ্যে ঐক্য এবং সংহতি জোরদার করতে হবে।