আবারো কাশ্মিরে বিজেপি নেতা ও তার স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা

দিন দিন ভারত নিয়ন্ত্রিত জন্ম ও কাশ্মির অশান্ত হয়ে উঠছে। গত কয়েকদিন ধরে সরকারি বাহনী সেখানে জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের ধরে হত্যা করছে। এবার অনন্তনাগ জেলায় এক বিজেপি নেতা ও তার স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করে বন্দুকধারীরা।

পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনাটি ঘটেছে অনন্তনাগ জেলার লালচক এলাকায়। এদিন বন্দুকদের গুলিতে প্রাণ হারান বিজেপি নেতা গোলাম রসুল দার ও তার স্ত্রী জোয়াহারা বানু। হামলার পর দ্রুত তাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও শেষরক্ষা হয়নি।

কুলগাম বিজেপি কিষান মোর্চার প্রেসিডেন্ট ছিলেন রসুল। তবে সম্প্রতি লালচকেই থাকছিলেন তিনি। এই ঘটনায় চঞ্চল্য ও আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। হামলাকারীদের খোঁজে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী। কাশ্মির পুলিশের আইজিপি বিজয় কুমার ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর জানিয়েছেন এই কাজের নেপথ্যে পাক মদতপুষ্ট সংগঠন লস্কর-ই-তৈবার হাত রয়েছে।

উল্লেখ্য, কাশ্মির বিজেপি নেতাদের উপর হামলার ঘটনা নতুন কিছু নয়। বিশেষ করে উপত্যকায় ৩৭০ ধারা রদ হওয়ার পর থেকে আরো বেড়েছে হামলার ঘটনা। গত জুন মাসেই দক্ষিণ কাশ্মিরের পুলওয়ামা জেলার ত্রালে বিজেপি কাউন্সিলর রাকেশ পণ্ডিতাকে গুলি করে হত্যা করে বন্দুকধারীরা। ঘটনার সময় মুস্তাক আহমেদ নামের এক বন্ধুর সাথে কথা বলছিলেন পণ্ডিতা। তখনই সেখানে হামলা চালায় তিন বন্দুকধারী। লাগাতার গুলিবর্ষণ শুরু করে তারা। গুলির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই বিজেপি নেতার। গত বছর কুলগাম এলাকার যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক ফিদা হুসেন ইটু এবং দুই বিজেপি কর্মী উমর হাজাম ও হারুন রশিদ বেগকে হত্যা করে বন্দুকধারীরা।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন